শ্যামনগরে কলেজছাত্রীকে আটকে রেখে ধর্ষণ অভিযোগে গ্রেফতার ২

0

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা॥ সাতক্ষীরার শ্যামনগরে এক কলজে ছাত্রীকে প্রকাশ্য দিবালোকে অপহরণ করে দীর্ঘদিন আটকে রেখে ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় ভিকটিম ছাত্রীর মা উপজেলার মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের সেন্ট্রাল কালিনগর গ্রামের শাজাহান শেখের ছেলে খানজাহান আলী (২২) ও একই গ্রামের ইসাহাক আলী মল্লিকের ছেলে মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের প্রাক্তন সদস্য মেস্তাফিজুর রহমান বকুলসহ অজ্ঞাতনামা ২/৩ জনের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে মামলা করেছেন। শ্যামনগর থানার ওসি (তদন্ত) হাফিজুর রহমান তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে সোমবার ভোর ৪টার দিকে ওই দুই জনকে গ্রেফতার করেছেন। এরআগে গত ৮ জানুয়ারি কলেজে যাওয়ার পথে বেলা ১১টার দিকে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করা হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, ওই ছাত্রী কলেজ যাওয়া -আসার পথে খানজাহান আলী ও তার বন্ধু মোস্তাফিজুর রহমান প্রায় উত্যক্ত করতেন। বিষয়টি পারিবারিকভাবে একাধিকবার শালিস বৈঠকে কোন সুরাহ হয়নি। এক পর্যায়ে আসামিরা ক্ষিপ্ত হয়ে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে ঘটনার দিন দলবদ্ধভাবে মোটরসাইকেলে করে ওই ছাত্রীকে অপহরণ করে এবং দীর্ঘ এক মাস আটকে রেখে ছাত্রীকে জোর করে ধর্ষণ করে। শ্যামনগর থানার ওসি আবুল কালাম আজাদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ভিকটিম ছাত্রীকে উদ্ধার করে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্যে সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (সামেক) প্রেরণ করা হয়েছে। আটকদের সাতক্ষীরা আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে।

 

Lab Scan