শোক ও গৌরবের ভাষার মাস

0

মাসুদ রানা বাবু ॥ ৯ ফেব্রুয়ারি ১৯৫২। পাকিস্তানের আদমশুমারিতে দেখা যায়, বিভিন্ন ভাষাভাষি মানুষের মধ্যে বাংলা ভাষার মানুষের সংখ্যাই সর্বাধিক। আদমশুমারির মতে, শতকরা ৫৪ ভাগ মানুষ বাংলা ভাষায় কথা বলেন। এর বাইরে পাঞ্জাবি ২৮ দশমিক ৪ শতাংশ এবং উর্দুভাষি ৭ দশমিক ৩ শতাংশ। তারপরও বাংলাকে রাষ্ট্রভাষার মর্যাদা দেওয়ার বিরুদ্ধে অনঢ় অবস্থান নেয় পাকিস্তানি শাসকগোষ্ঠী। তারা উর্দুকে একমাত্র রাষ্ট্রভাষা ঘোষণা দিয়ে বাংলা ভাষাভাষি মানুষের ওপর তা চাপিয়ে দেওয়ার অপচেষ্টা চালায়। কিন্তু পাকিস্তানি শাসকদের নীতিবর্জিত ঘোষণাকে মেনে নেয়নি পূর্ববাংলার মানুষ। তারা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে ফুঁসে ওঠেন। ঢাকাসহ সারাদেশে গড়ে তোলেন অগ্নিঝরা আন্দোলন। সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের কর্মসূচির মাধ্যমে ছাত্র-শিক্ষক-জনতা বাংলাকে রাষ্ট্রভাষা করার দাবিতে সামনের দিকে অগ্রসর হতে থাকেন।

 

Lab Scan