শোক ও গৌরবের ভাষার মাস

0

মাসুদ রানা বাবু ॥ ৬ ফেব্রুয়ারি ১৯৫২ সাল। ‘রাষ্ট্র ভাষা বাংলা চাই’ স্লোগানটি বাংলা ভাষাভাষি মানুষের কাছে দ্রুত জনপ্রিয় হয়ে উঠতে থাকে। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশে চলমান আন্দোলনে অংশগ্রহণকারীর সংখ্যা ক্রমশ বাড়তে থাকে। বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা করার দাবিতে ছাত্র, শিক্ষক, বুদ্ধিজীবীদের সাথে বাংলা ভাষাপ্রেমি নেতারা রাজপথে নেমে আসেন। সর্বদলীয় রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের কর্মসূচি ঢাকা মহানগরের পাশাপাশি সারাদেশে প্রসারিত হতে থাকে। মায়ের ভাষার মর্যাদার লড়াইয়ে আন্দোলিত হয়ে ওঠে সারাদেশ। পাকিস্তানি সরকার গতিশীল এ আন্দোলনের নস্যাৎ করতে নতুন ষড়যন্ত্র শুরু করে। তারা উর্দুকে একমাত্র রাষ্টভাষা প্রতিষ্ঠা করতে সারাদেশে প্রচেষ্টা চালাতে থাকে। সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে উর্দু ভাষায় কাজকর্ম পরিচালনা করার নির্দেশ দেয় পাকিস্তানি সরকার। কিন্তু এ নির্দেশে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন বাংলা ভাষাভাষি সরকারি কর্মচারীরা। তারা দাবি তোলেন বাংলা হবে অফিস-আদালতের প্রথম ভাষা। উর্দু হবে দ্বিতীয় এবং ইংরেজি হবে অফিস-আদালতের তৃতীয় ভাষা। কর্মচারীদের এমন দাবিতে আরও জ্বলে ওঠেন পাকিস্তানি সরকারের প্রশাসকরা

Lab Scan