শৈলকুপায় শ্বশুর বাড়িতে জামাইয়ের আত্মহত্যা

0

 

শৈলকুপা (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা ॥ ঈদুল আজহায় শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে এসে গলায় ফাঁস দিয়ে মারুফ হোসেন(২১) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। ঘটনাটি রোববার সন্ধ্যায় শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের গোয়ালবাড়ি গ্রামে ঘটে। ওই যুবক পৌর এলাকার মালিপাড়া গ্রামের মোবারক হোসেনের ছেলে এবং গোয়ালবাড়িয়া গ্রামের ফারুক হোসেনের জামাই। যুবক মারুফ পেশায় গার্মেন্টস কর্মী ছিলেন।
যুবকের শাশুড়ি শিল্পী খাতুন জানান, কুরবানির ঈদে মেয়ে চাঁদনী খাতুন ও জামাই মারুফ বেড়াতে আসে। বিকেলে জামাইকে খাবার দিয়ে পাড়ায় বেড়াতে যান। ফিরে এসে জামাই মেয়ের শোয়ার ঘরের দরজা বন্ধ দেখতে পান। পরে অনেক ডাকাডাকির পরেও সাড়া না পেয়ে দরজা ভেঙে ঘরের ডাবের সাথে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে দেখতে পান। পরে প্রতিবেশীদের সাহায্যে ওড়না কেটে লাশ নিচে নামানো হয়। তিনি আরো জানান, কী কারণে জামাইয়ের এমন রহস্যজনক মৃত্যু হয়ে তারাও জানেন না।
যুবকের মা জানান, সম্পর্ক করে ছেলে বিয়ে করে গত ১ বছর ঢাকায় গার্মেন্টস কারখানায় চাকরি করতো। কুরবানির ঈদে ছুটিতে শ্বশুর বাড়ি বেড়াতে এসেছে। ছেলের মৃত্যুর খবর তার শ্বশুররা আমাদের জানায়নি। অন্যের কাছ থেকে সংবাদ শুনে এসেছি। তিনি আরো জানান, ছেলের এমন মৃত্যু ও শ্বশুর বাড়ির লোকদের গোপনীয়তা রহস্যের জন্ম দেয়। সুষ্ঠু তদন্তে রহস্য উদঘাটনের জন্য প্রশাসনের কাছে দাবি জানায় ।
শৈলকুপা থানার অফিসার ইনচার্জ আমিনুল ইসলাম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, শ্বশুর বাড়ি গিয়ে মারুফ নামে এক ব্যক্তি গলাই রশি নিয়ে আত্মহত্যা করেছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠিয়েছি।

Lab Scan