শৈলকুপার একটি বেহাল রাস্তা, বৃষ্টি হলে হাঁটুপানি

স্টাফ রিপোর্টার, ঝিনাইদহ ॥ প্রথম দেখায় মনে হবে একটি পুকুর। কিন্তু না। এটা এলজিইডির রাস্তা। নির্মাণ হওয়ার পর প্রায় দেড় যুগ পার করছে রাস্তাটি। ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার সারুটিয়া ইউনিয়নের কীর্ত্তিনগর ভুলুন্দিয়া গ্রামের রাস্তাটির এখন বেহালদশা। এই রাস্তা দিয়ে প্রতিদিন শ শ মানুষ চলাচল করেন। শৈলকুপার নাদপাড়া, ভাটবাড়িয়া, ভুলুন্দিয়া, কীর্ত্তিনগর, তেঘরিয়াসহ বিভিন্ন গ্রামের মানুষ এই রাস্তা ব্যবহার করে কাতলাগাড়ি আসেন। কিন্তু বৃষ্টি হলেই রাস্তায় হাঁটু পানি বেধে যায়। এখন রাস্তার উপর থৈ থৈ পানি। রাস্তা নয়, যেন মরণফাঁদ। এলাকাবাসী জানান, বাজারে পণ্য সরবরাহ করতে কৃষকরা এই রাস্তা ব্যবহার করেন। বর্তমানে রাস্তাটি ভেঙেচুরে যাওয়ায় তাদের ভোগান্তির শেষ নেই। পুরো রাস্তা জুড়েই খানাখন্দে ভরপুর। ফলে ৩ কিলোমিটার পথ ঘুরে কাতলাগাড়ি বাজারে আসতে হয় ১০ গ্রামের মানুষকে। এ ব্যাপারে জানতে চাইলে শৈলকুপা উপজেলা এলজিইডির কর্মকর্তারা রাস্তা নিয়ে কোন মন্তব্য করতে চাননি।

ভাগ