শেষ ম্যাচে বাজিমাত লিভারপুলের, হতাশা লেস্টারের জন্য

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ চ্যাম্পিয়নশিপ আগেই নির্ধারণ হয়ে গিয়েছিল। ম্যানচেস্টার সিটির শো-কেসেই আগামী এক বছরের জন্য শোভা পাবে ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের ট্রফিটি। তবে, শিরোপা নির্ধারণ হয়ে গেলেও লিগের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত একটা আকর্ষণ বজায় ছিলই।চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলাও নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল ম্যানসিটি এবং ম্যানইউর। বাকি কোন দুটি দল চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলবে ইংল্যান্ড থেকে, সেটা নির্ধারণের জন্য লিগের শেষ ম্যাচ পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়েছে।সেই শেষ ম্যাচে এসে বাজিমাত করলো এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগে এরই মধ্যে ফাইনাল নিশ্চিত করে ফেলা চেলসি এবং গত ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের চ্যাম্পিয়ন লিভারপুল। চরম হতাশা নিয়ে প্রিমিয়ার লিগ শেষ করলো লেস্টার সিটি। নিশ্চিত চ্যাম্পিয়ন্স লিগে জায়গা করে নিচ্ছিল তারা। কিন্তু শেষ ম্যাচে এসে ঘরের টটেনহ্যামের কাছে হেরে ইউরোপা লিগেই নাম লেখাতে হলো তাদের।
চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলতে হলে ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে জয় প্রয়োজন ছিল লিভারপুলের। ইয়ুর্গেন ক্লপের শিষ্যরা শেষ ম্যাচে আর ভুল করেননি। সেনেগালিজ তারকা সাদিও মানের জোড়া গোলের বদৌলতে ২-০ ব্যবধানে জয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে লিভারপুল। ক্রিস্টাল প্যালেসের বিপক্ষে ম্যাচের ৩৬ মিনিটে প্রথম গোল করেন সাদিও মানে। ১-০ ব্যবধানে বিরতিতে যাওয়ার ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধের মাঝামাঝি সময় তথা ৭৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করেন মানে। এই জয়ের সঙ্গে ৬৯ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে থেকে লিগ শেষ করলো লিভারপুল। সে সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে সরাসরি খেলার টিকিটও কেটে নিলো তারা। শেষ ম্যাচ হারলেও চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার পথে বাধা রইলো না চেলসির। সে ক্ষেত্রে তাদের জন্য আশির্বাদ হিসেবে উপস্থিত হয়েছে লেস্টারের পরাজয়। অ্যাস্টন ভিলার মাঠে খেলতে গিয়েছিল চেলসি। কিন্তু ৪৩ মিনিটে বার্টান্ড ট্রাওর এবং ৫২ মিনিটে আনোয়ার এল গাজির পেনাল্টি থেকে করা গোলে ২-১ ব্যবধানে হেরে যায় চেলসি। ৭০ মিনিটে বেন চিলওয়েল একটি গোল পরিশোধ করতে পেরেছিলেন চেলসির হয়ে। ৮৯ মিনিটে ১০ জনের দলে পরিণত হয় তারা, সিজার আজপিলিকুয়েটার লাল কার্ড দেখার পর।
লেস্টার সিটি ঘরের মাঠে আমন্ত্রণ জানিয়েছিল টটেনহ্যামকে। কিন্তু হ্যারি কেনের দলের কাছে ৪-২ গোলে হেরে যায় লেস্টার। টটেনহ্যামের হয়ে ৪১ মিনিটে প্রথম গোল করেন হ্যারি কেন। ৭৬ মিনিটে আত্মঘাতি গোল করে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে দেন লেস্টারের কেস্পার স্মেইখেল। এরপর ৮৭ এবং ৯০+৬ মিনিটে জোড়া গোল করেন গ্যারেথ বেল। লেস্টারের হয়ে ১৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে প্রথম গোল করেন জেমি ভার্ডি। ৫২ মিনিটেও পেনাল্টি থেকে গোল করেন তিনি। এই দুই গোলের পর ম্যাচ শেষে ব্যবধান দাঁড়ায় ২-৪ গোলের। পরাজয় নিয়েই মাঠ ছাড়ে লেস্টার এবং সে সঙ্গে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে থেকেও ছিটকে পড়ে তারা। শেষ ম্যাচে গোল উৎসব করেছে চ্যাম্পিয়ন্স ম্যানসিটি। নিজেদের মাঠে এভার্টনকে পেয়ে পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা জিতেছে ৫-০ গোলের ব্যবধানে। ১১ মিনিটে কেভিন ডি ব্রুইন গোলের সূচনা করেন। ১৪ মিনিটে দ্বিতীয় গোল করেন গ্যাব্রিয়েল হেসুস। ৫৩ মিনিটে তৃতীয় গোল করেন ফিল ফোডেন। ৭১ এবং ৭৬ মিনিটে জোড়া গোল করেন সার্জিও আগুয়েরো। জোড়া গোলে প্রিমিয়ার লিগে ম্যানসিটিকে বিদায় জানালেন তিনি। তবে আগামী সপ্তাহে নামবেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ফাইনাল খেলতে।

Lab Scan