শিশু ক্রিকেটাররা খেলল হাবিবুল-তাসকিনদের সঙ্গে

কিশোর-কিশোরী ক্রিকেটারদের একটি দল শনিবার মিরপুর শেরে বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দেশের সাবেক ও বর্তমান ক্রিকেট কিংবদন্তিদের সঙ্গে দলবেঁধে একটি বিনোদনমূলক ও হাই-ভোল্টেজ ম্যাচ খেলেছে। ২০ নভেম্বর বিশ্ব শিশু দিবসকে সামনে রেখে ১০ ওভারের এই ম্যাচের আয়োজন করা হয় এদিন। বিশ্ব শিশু দিবসে পুরো বিশ্ব শিশুদের অধিকার ও প্রয়োজনগুলোকে সামনে আনবে, সিদ্ধান্ত গ্রহণে সক্রিয় অংশগ্রহণকারী হিসেবে শিশু ও তরুণ জনগোষ্ঠীর কথা গুরুত্বের সঙ্গে তুলে ধরবে এবং শিশুদের সহায়তায়, বিশেষ করে সবচেয়ে অসহায় ও সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের সহায়তায় কর্মরত ব্যক্তি, করপোরেট প্রতিষ্ঠান এবং সরকারের সংখ্যা বাড়াতে সহায়তা করবে।
এই উদ্যোগের অংশ হিসেবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) সহযোগিতায় ইউনিসেফ বাংলাদেশ একটি বন্ধুত্বপূর্ণ ক্রিকেট ম্যাচের আয়োজন করে। যেখানে মিরপুর স্টেডিয়ামের গ্যালারিতে কয়েক হাজার শিশু দর্শকের উল্লাসের মাঝে ইউনিসেফের সহযোগী বেসরকারি সংস্থা (এনজিও) ব্র্যাক, অপরাজেয় বাংলা ও সুরভীর সুবিধাবঞ্চিত শিশু ও কিশোর-কিশোরীরা রোমাঞ্চকর এই ক্রিকেট প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডুয়ার্ড বেগবেদার বলেন, ‘এই ধরনের পেশাদার ও সফল ক্রিকেটাদের সঙ্গে একই কাতারে সামিল হয়ে খেলার যে সাহস এই শিশুরা দেখিয়েছে তা পরিষ্কারভাবে এই দেশকে সব শিশুর জন্য উপযোগী করে গড়ে তুলতে ভবিষ্যতের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করা এবং দেশকে নেতৃত্ব দেওয়ার েেত্র তাদের মধ্যে থাকা সম্ভাবনারই প্রমাণ’। বন্ধুত্বপূর্ণ এই ক্রিকেট ম্যাচে খেলেন সাবেক বাংলাদেশের জাতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হাবিবুল বাশার, সাবেক জাতীয় ক্রিকেটার হান্নান সরকার, জাতীয় দলের খেলোয়াড় তাসকিন আহমেদ, জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সদস্য সুরাইয়া আজমিন এবং উভয় দলেই একদল কিশোর-কিশোরী তাদের সঙ্গে খেলায় অংশ নেয়। ‘বিশ্ব শিশু দিবস’ হচ্ছে ‘শিশুদের জন্য এবং শিশুদের দ্বারা’ ইউনিসেফের বার্ষিক বৈশ্বিক কার্যক্রমের দিন। এ বছর পুরো বিশ্ব একত্রিত হবে এমন একটি পৃথিবী গড়ে তোলার জন্য যেখনে প্রতিটি শিশু স্কুলে যাবে, তির হাত থেকে নিরাপদ থাকবে এবং তাদের সম্ভাবনার বিকাশ ঘটাতে পারবে।

ভাগ