লোহাগড়ায় ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে পিটিয়ে জখম

শিমুল হাসান,লোহাগড়া(নড়াইল)॥ নড়াইলের লোহাগড়ার কাউড়ীখোলা-কামঠানা এলাকায় এক নারীকে (৩৭) ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে লম্পটেরা লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্বক জখম করেছে। মারাত্বক অসুস্থ অবস্থায় পথচারীরা ওই নারীকে উদ্ধার করে লোহাগড়া হাসাপতালে ভর্তি করেছে। ওই নারীর অবস্থা আশংকাজনক বলে চিকিৎসকরা জানান। বৃহস্পতিবার(১৬ জানুয়ারি) রাত ৮টার দিকে এঘটনা ঘটে। ওই নারীকে উদ্ধারকারী পথচারীরা জানায়, কাউড়ীখোলা-কামঠানা এলাকায় রাত ৮টার দিকে রাস্তার পাশের্^ রক্তাক্ত অবস্থায় ওই নারীকে দেখতে পেয়ে আমরা লোহাগড়া হাসপাতালে নিয়ে আসি। পরে কর্তব্যরত ডাক্তার পুলিশে খবর দিলে পুলিশ হাসপাতালে এসে ওই নারীর চিকিৎসাসহ যাবতীয় খোঁজ নেয়।
কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে ওই নারী জানায়, কাউড়ীখোলা-কামঠানা এলাকায় আমাকে কয়েকজন লম্পট জোর করে ধরে বাগানে নিয়ে ধর্ষণ চেষ্টা করে। আমি রাজি না হওয়ায় লম্পটরা আমাকে লোহার রড ও লাঠি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্বক জখম করেছে। ওই নারী আরো জানায়, আমি এক হুজুরের কাছে কাজে এসেছিলাম। প্রচুর রক্তক্ষরণ হওয়ায় তিনি বিস্তারিত বলতে পারেননি। ওই এলাকার নয়ন ব্রিক্স এর শ্রমিক ম্যানেজার আরিফ সরদার জানান, ওই নারীর বাড়ি আমাদের খুলনার পাইকগাছা থানার সরল গ্রামে। ওই নারীর স্বামী আমার সাথে গত বছর ইটভাটায় কাজ করেছিল। এবছর কাজ করছেন না। কারা মারপিট করেছে জানিনা। হাসপাতালের জরুরী বিভাগের ডাক্তার রিপন ঘোষ বলেন, ওই নারীর মাথা অনেকখানি কেটে গেছে। ৮/১০টি সেলাই দেয়া হয়েছে। একটি হাতও ভেঙ্গে গেছে। অবস্থা আশংকাজনক। চিকিৎসা চলছে। লোহাগড়া থানার ওসি(তদন্ত) মোঃ আমানুল্লাহ আল-বারী জানান, ওই নারীসহ উদ্ধারকারীদের সাথে কথা বলেছি। তদন্ত করে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছি।

ভাগ