লিগ বন্ধে কোচ-খেলোয়াড়দের বেতন নিয়ে শঙ্কায় ক্লাবগুলো

লোকসমাজ ডেস্ক॥ বাংলাদেশ প্রিমিয়ার ফুটবল লিগ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ। করোনাভাইরাসের ভয়াবহতায় লিগ শুরু নিয়ে আছে অনিশ্চয়তা। খেলা বন্ধ থাকায় ক্লাবগুলোও বিপাকে। স্থানীয় ও বিদেশি খেলোয়াড় ও কোচদের বেতন-ভাতা কিভাবে দেওয়া হবে, তা নিয়ে আছে সংশয়। বড় ক্লাবগুলোর চেয়ে বেশি চাপে ছোট কিংবা মাঝারি ক্লাবগুলো। লিগ অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকায় কোচ ও খেলোয়াড়দের অলস সময় কাটাতে হচ্ছে। খেলা যদি দীর্ঘসময়ের জন্য বন্ধ থাকে তাহলে তাদের বেতন কিভাবে দেওয়া হবে, দুশ্চিন্তায় কর্মকর্তারা। এ নিয়ে বসুন্ধরা কিংসের সভাপতি ইমরুল হাসান বাংলা ট্রিবিউনকে বলেছেন, ‘আমরাও বিষয়টি চিন্তা করছি। খেলা না থাকলে খেলোয়াড়দের বেতন দিবো কিভাবে। অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ থাকলে তো বেতন দেওয়া কঠিন। যখন খেলা শুরু হবে, তখন আবার তাদের বেতন দিতে হবে। তাহলে কি আমাদের বেশি অর্থ দিতে হবে তাদেরকে?’ এজন্য অবশ্য তারা ফিফা-এএফসির দ্বারস্থ হয়েছেন। ইমরুল জানালেন, ‘এরই মধ্যে আমরা বাফুফেকে জানিয়েছি যে ফিফা-এএফসি কী বলে, তা জানানোর জন্য- আমাদের কি খেলোয়াড়দের খেলা থাকলে নাকি না থাকলেও টাকা দিতে হবে।’
আবাহনীর ম্যানেজার সত্যজিত দাশ রুপু অবশ্য বিষয়টি নিয়ে ততটা চিন্তিত নন, ‘যে কোনোভাবে বিষয়টি সমন্বয় করে নিতে হবে। এছাড়া কিছু করার নেই। আমরা প্রয়োজনে সেই দিকে যাব।’ তবে মাঝারি কিংবা ছোট ক্লাবগুলোর বিপদ বেশি। খেলা নেই, কিন্তু কোচ ও খেলোয়াড়দের বসিয়ে টাকা দিতে হচ্ছে। এতে করে তাদের খরচ অনেক বেড়ে যাচ্ছে। রহমতগঞ্জের সাধারণ সম্পাদক ইমতিয়াজ হামিদ বলেছেন, ‘বিদেশি খেলোয়াড়েরা ঢাকা ছাড়তে পারছেন না। তার ওপর তাদের টাকা প্রয়োজন। কিন্তু লিগ তো বন্ধ। শিগগিরই তা শুরু না হলে আমাদের পক্ষে তাদের বেতন দেওয়া কঠিন হবে।’

ভাগ