রূপপুরের সেই আলোচিত পর্দার টেন্ডার বাতিল

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ রুপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আবাসিক ভবনের জন্য পর্দা এবং জনশুমারি প্রকল্পের ছোট ল্যাপটপ ক্রয়ের প্রস্তাব বাতিল করেছে সরকারি ক্রয় কমিটি। বুধবার অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভার্চ্যুয়াল সভায় এই সিদ্ধান্ত হয়। সভা শেষে অর্থমন্ত্রী জানান, ওই দুটি প্রস্তাব রিটেন্ডার করতে বলা হয়েছে। মন্ত্রী পরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শামসুল আরেফিন বলেন, কিছু নিয়মের ব্যাতয় হওয়ার কারণে প্রস্তাব দুটি ফেরত পাঠানো হয়েছে।
সভায় জানানো হয়, ঈশ্বরদী, পাবনায় বাস্তবায়নাধীন ‘রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পের গ্রিন সিটি আবাসিক কমপ্লেক্সে ডব্লিউডি-২৫ প্যাকেজের আওতায় পর্দা সরবরাহ এবং স্থাপনের জন্য উম্মুক্ত দরপত্র পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করা হলে ২টি দরপত্র জমা পড়ে। এর মধ্যে কারিগরিভাবে ১টি রেসপনসিভ হয়। দরপত্রের সব প্রক্রিয়া শেষে একমাত্র রেসপনসিভ দরদাতা প্রতিষ্ঠান ইউরোশিয়া ফেল্ট ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড, ঢাকা-এর কাছ থেকে পর্দা ক্রয় ও স্থাপন কাজের সুপারিশ করে দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি। তবে দাম বেশি হওয়ায় প্রস্তাবটি বাতিল করেছে কমিটি। ১২৫০ বর্গফুটের ১টি ২০ তলা ভবন এবং ১টি ১৬তলা ভবনে ১৯৬টি ইউনিটের পর্দা সরবরাহ করার কথা ছিল। প্রতিটি ইউনিটে পর্দার জন্য ২ লাখ ৩ হাজার ৫৬৯ টাকা হিসাবে মোট ব্যয় ধরা হয়েছিল ৪ কোটি ৬৭ লাখ ৫৯ হাজার ৫৪৫ টাকা। অপরদিকে জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২১ প্রকল্পের আওতায় ট্যাবলেট ফর ক্যাপি (কম্পিউটার অ্যাসিস্টেড পারসনাল ইন্টারভিউইং) ফর মেইন সেন্সাস ক্রয়ের একটি প্রস্তাবও ফেরত দিয়েছে কমিটি। আগামী ২৫শে থেকে ৩১শে অক্টোবর, ২০২১ সময়ে মাঠ পর্যায়ে জনশুমারির তথ্য সংগ্রহের জন্য জনশুমারি ও গৃহগণনা-২০২১ প্রকল্পের আওতায় ৩ লাখ ৯৫ হাজার ট্যাবলেট কেনার জন্য উম্মুক্ত পদ্ধতিতে দরপত্র আহ্বান করা হলে ২টি দরপত্র জমা পড়ে। এর মধ্যে দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি ফেয়ার ইলেক্ট্রনিকস লিমিটেড ৫৪৮ কোটি ৭৩ লাখ ১৭ হাজার ৭০ টাকা টাকা উল্লেখ করে। দরপত্রে অংশগ্রহণকারী দেশীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেড ৪০২ কোটি ৪৩ লাখ ৭৯ হাজার ৭৯০ টাকা উল্লেখ করে। যা সুপারিশকৃত দরদাতার চেয়ে ১৪৬ কোটি ২৯ লাখ ৩৭ হাজার ২৮০ টাকা কম। তবে দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি প্রিলিমিনারি এবং টেকনিকাল ইভ্যালুয়েশনের শর্ত পূরণ না হওয়ার কারণ দেখিয়ে ওয়ালটন ডিজি-টেক ইন্ডাস্ট্রিজকে নন-রেসপন্সিভ ঘোষণা করে। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামালের সভাপতিত্বে ক্রয় কমিটি দরপত্রটি বাতিল করা হয়।
এ বিষয়ে অতিরিক্ত সচিব মো. সামসুল আরেফিন বলেন, প্রস্তাবটি বাতিল করে পুনঃদরপত্রের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর আগে অর্থমন্ত্রীর সভাপতিত্বে অর্থনৈতিক বিষয় সংক্রান্ত মন্ত্রীসভা কমিটির বৈঠকে দুটি প্রস্তাবে নীতিগত অনুমোদন দেয়া হয়। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব শামসুল আরেফিন বলেন, জনশুমারি ও গৃহগণনা প্রকল্পের আওতায় ট্যাব কেনার বিষয়টিতে ত্রুটি ধরা পড়েছে। এজন্য এটি বাতিল করে রিটেন্ডারের জন্য সিদ্ধান্ত দেয়া হয়েছে। টেন্ডারে অংশগ্রহণ করা দুটি কোম্পানির ব্যয়ের পার্থক্য কত- এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের কাছ থেকে ট্যাব কিনতে সুপারিশ করেছিল বিবিএস-এর মূল্যায়ন কমিটি। যার ফলে সভায় ফেয়ার ইলেকট্রনিক্স লিমিটেডের তথ্য উপস্থাপন করা হয়েছে। বাকি আরেকটি কোম্পানির বিষয়ে কোনো কিছু জানানো হয়নি।

Lab Scan