রাশিয়ার ট্যাংক রুখতে ব্রিজসহ নিজেকে উড়িয়ে দিলেন ইউক্রেনীয় সেনা!

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ শরীরে মাইন বেঁধে নিজেকে উড়িয়ে দিয়ে রাশিয়ার ট্যাংক আটকে দিলেন এক ইউক্রেনীয় সৈনিক। তার নাম ভিতালি স্কাকুন ভোলোদিমিরোভিচ। পদমর্যাদায় ইউক্রেনের নৌ-সেনার ব্যাটালিয়ন ইঞ্জিনিয়ার। রাশিয়া অধিকৃত ক্রাইমিয়া থেকে ইউক্রেনের মূল ভূখণ্ডে প্রবেশের জন্য প্রশস্ত রাস্তা খেরসন প্রদেশ হয়ে যায়। সেই রাস্তার ওপর হেনিচেস্ক সেতু। রাশিয়ার সাঁজোয়া গাড়ি ও ট্যাংক সেই পথ দিয়েই মূল ইউক্রেনে ঢুকে পড়ার পরিকল্পনা করেছিল। কিন্তু বাধা হয়ে দাঁড়ান ভিতালি স্কাকুন ভলোদিমিরোভিচ। যখন দেখলেন, ইউক্রেনে ঢুকে পড়তে মরিয়া রুশ ট্যাংকের সারি এগিয়ে আসছে সেতু লক্ষ্য করে, তখন গায়ে মাইন বেঁধে নিজেকেই উড়িয়ে দিলেন। মুহূর্তে ধসে পড়ল চার লেনের সেতু। থমকে গেল রাশিয়ার ট্যাংক বাহিনী। নিজের প্রাণ দিয়ে রাশিয়ার ট্যাংক বাহিনীকে রুখে দেওয়ার জন্য যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনে এখন জাতীয় বীরের মর্যাদা পাচ্ছেন ভিতালি। এখন ইউক্রেন সেনাদের মুখে মুখে ঘুরছে ভিতালির বলিদানের কাহিনী। ভিতালির সহযোদ্ধারা জানিয়েছেন সেই মুহূর্তের কথা। তারা বলছেন, ‘ভিতালি একাই সেতুর ওপর মাইন বসানোর কাজ করছিল। আচমকাই দূরে রাশিয়ার ট্যাংক বাহিনীকে দেখতে পেয়ে আমরা তা ওকে জানাই। মাইন বসানোর কাজ তখনও কিছুটা বাকি। এই সময় ভিতালি আমাদের জানায়, এখন মাইন বসিয়ে সে ফিরে আসার চেষ্টা করলে ট্যাংক আটকানো যাবে না। তাই নিজেকেই উড়িয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।’ সহযোদ্ধারা জানাচ্ছেন, একথা বলার পরই একটি বিকট বিস্ফোরণের আওয়াজ পান তারা। ধোঁয়া সরলে দেখা যায়, মাঝখান থেকে নদীতে ভেঙে পড়ে আছে হেনিচেস্ক সেতু। দূরে থমকে দাঁড়িয়ে রাশিয়ার ট্যাংক বাহিনী। আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সূত্রে জানা যাচ্ছে, সেতু ভেঙে যাওয়ায় রাশিয়ার ট্যাংক বাহিনীকে অন‌্য পথে আরও অনেকটা বেশি সময় নিয়ে ইউক্রেনের মূল ভূখণ্ডে ঢুকতে হয়। এতে সময়ও যায় অনেকটা বেশি। এই সুযোগে নিজেদের প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা খানিকটা মজবুত ও দুর্ভেদ্য করার মূল্যবান সময় হাতে পেয়ে যায় ইউক্রেনের সেনাবাহিনী। এছাড়া ভিতালিকে মরণোত্তর সম্মান দেওয়ার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিয়েছে ইউক্রেন সেনাবাহিনী।

Lab Scan