রামপালে রাজনৈতিক দলের নেতাদের সাথে মতবিনিময় সভা

0

রামপাল (বাগেরহাট) সংবাদদাতা॥ রামপালে সকল রাজনৈতিক দলে নারীদের যথাযথ অন্তর্ভুক্তি নিশ্চিতকরণের দাবিতে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১১ টায় উপজেলা কৃষি অফিস অডিটোরিয়মে রূপান্তরের আয়োজনে ও অপরাজিতা নারীর ক্ষমতায়ন প্রকল্পের সহযোগিতায় এই মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নারী উন্নয়ন ফোরামের সভাপতি ও উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হোসনেয়ারা মিলি। উপজেলা সমন্বয়কারী পার্থ প্রতিম ঠাকুরের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, রাজনগর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সুলতানা পারভীন। অন্যান্যর মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ও রামপাল উন্নয়ন সমন্বয়কারী এ্যাডভোকেট মহিউদ্দিন শেখ, বীর মুক্তিযোদ্ধা দ্বীজেন্দ্রলাল মণ্ডল, জেলা অপরাজিতার প্রোগ্রাম অফিসার চন্দন বিন রহিম, সাংবাদিক মোতাহার মল্লিক, সুজন মজুমদার, অপরাজিতা ও সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য টুম্পা ঘোষ, গায়ত্রী বিশ্বাস, হাসিনা বেগম, অপরাজিতা সদস্য ঝর্ণা, দূর্গারাণী বিশ্বাস, রাবেয়া বেগম, শুক্লা সরকার, জান্নাতুল ফেরদৌস, সুষমা বিশ্বাস, অনামিকা হালদার, শিউলি মণ্ডল, ফারহানা ইয়াসমিন পপি ও হামিদা বেগম প্রমুখ। এ সময় বক্তারা গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের নির্দেশনা অনুসারে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের সকল পর্যায়ের কমিটি ৩৩% নারীদের অন্তর্ভুক্ত করার শর্ত পূরণের দাবি জানান। ২০০৯ সালে সংশোধিত গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশে ১৯৭২ সংবিধান অনুসারে বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনে নিবন্ধিত সকল রাজনৈতিক দলের কেন্দ্রীয় কমিটি এবং জেলা, উপজেলা পর্যাযের কমিটিতে ২০২০ সালে ৩৩% শতাংশ নারীর প্রতিনিধিত্ব অর্জিত হওয়ার কথা থাকলেও এখনো পর্যন্ত আওয়ামী লীগে ১৮%, জাতীয়তাবাদী দলে ১৩%, জাতীয় পার্টি (এরশাদ) ১০%, কমিউনিষ্ট পার্টিতে ১৩%, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলে (জাসদ) ১২%, ওয়ার্কার্স পার্টিতে ৭% গণতন্ত্রী পার্টিতে ১৫% এবং ইসলামী ফ্রন্টে ১% নারীর অংশগ্রহণ বিদ্যমান রয়েছে। আশানুরূপ নারীর অগ্রগতি অর্জিত না হওয়ায় বক্তারা হতাশা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। নির্বাচন কমিশনে রাজনৈতিক দলসমূহের নিবন্ধন সংক্রান্ত আইন ২০২০ প্রণয়নের কাজ চলছে। যেখানে কমিটিসমূহ ৩৩% শতাংশ নারীর প্রতিনিধিত্ব থাকার বিধান রাখা হলেও এ ক্ষেত্রে নির্দিষ্ট কোনো সময়সীমা বেধে দেয়া হয়নি ।

Lab Scan