রহস্যজনক নিখোঁজ মোটর শ্রমিক রবিউলের সন্ধান মেলেনি ১০ দিনেও

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর নতুন উপশহর খাজুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ রবিউল ইসলাম (৩৫) নামে এক মোটর শ্রমিকের আজও সন্ধান মেলেনি। এ ঘটনায় তার পরিবারের পক্ষ থেকে যশোর কোতয়ালী মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে। নিখোঁজ রবিউলের ভাই মনিরুজ্জামান মনি বাদী হয়ে গতকাল কোতয়ালী থানায় ওই অভিযোগপত্র দাখিল করেছেন। নিখোঁজ রবিউল ইসলাম খাজুরা বাসস্ট্যান্ডে সিএনজি স্ট্যান্ডের স্ট্যাটার ছিলেন।
অভিযোগপত্রে বাদী উল্লেখ করেছেন, গত ২৭ মার্চ বেলা ১১টার দিকে বাহাদুরপুরস্থ নিজ বাসা থেকে পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে খাজুবা বাসস্ট্যান্ডের সিএনজি স্ট্যান্ডে আসে তার ছোট ভাই রবিউল ইসলাম। এখানে বেলা ২টা পর্যন্ত সে স্ট্যাটারি করে বলে স্ট্যান্ডের লোকজন জানায়। এরপর থেকে তার কোন খবর নেই। ঘটনার দিন রাতেও সে বাড়ি ফেরেনি। তার ব্যবহৃত মোবাইল ফোনটি ঘটনার পর থেকে বন্ধ রয়েছে। পরদিন থেকে প্রতিবেশীসহ বিভিন্ন আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজ নিয়েও তার কোন সন্ধান মেলেনি। বিষয়টি রহস্যজনক বলে মনে করছেন তার পরিবার। অনেক খোঁজাখুঁজির পর রবিউল ইসলামের কোন সন্ধান না পেয়ে পরিবারের সদস্যরা ভেঙে পড়েছেন। তারা আশঙ্কা করছেন রবিউল ইসলাম কোন অপহরণকারী চক্র বা কোন দুষ্কৃতকারী চক্রের হাতে পড়েছেন কিনা। নাকি কোন সাদা পোশাকের লোকজন রবিউলকে তুলে নিয়ে গেছে তা নিশ্চিত করতে পারছেন না কোন মহল। ফলে এই ঘটনায় খাজুরা বাসস্ট্যান্ডে কর্মরত মোটর শ্রমিকদের মধ্যে এক ধরনের অজানা আতঙ্ক বিরাজ করছে। তার সহকর্মী বা পরিবারের অনেকেই আশঙ্কা করছেন রবিউল ইসলাম আদৌও বেঁচে আছে কী না। এদিকে নিখোঁজ ছেলের শোকে বৃদ্ধ মা রাবেয়া বেগমের শারীরিক অবস্থার দিনদিন অবনতি ঘটছে।
এদিকে মোটর শ্রমিকদের বিভিন্ন সংগঠন বিশেষ করে খাজুরা বাস মালিক সমিতি, মোটর ওয়ার্কার্স অ্যাসোসিয়েশন, সিএনজি অটো মোবাইল শ্রমিক ফেডারেশন, থ্রি হুইলার চালক সমিতিসহ বিভিন্ন সংগঠন নিখোঁজ মোটর শ্রমিক রবিউল ইসলামকে খুঁজে বের করার জন্য পুলিশ প্রশাসনসহ সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানিয়েছেন।

ভাগ