যেসব পাসওয়ার্ড বিপদের কারণ

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ সকালে ঘুম ভাঙার পর থেকে রাতে ঘুমানোর আগ পর্যন্ত আমাদের সব কাজেই ভরসা গ্যাজেট। চোখ খুলে ফোনের লক খুলতে কিংবা এটিএম বুথে টাকা তুলতে। সব কাজই এখন সহজ থেকে হয়েছে সহজতর হয়েছে প্রযুক্তির কল্যাণে। আধুনিক জীবনের প্রত্যেক স্তরেই জড়িয়ে গিয়েছে নেট মাধ্যম।
    তবে নেট মাধ্যমের বিস্তারের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে প্রতারণাও। এসব প্রতারণা থেকে বাঁচতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হাতিয়ার শক্তিশালী পাসওয়ার্ড। ব্যক্তিগত নিরাপত্তার জন্য আমরা বিভিন্ন জায়গায় পাসওয়ার্ড ব্যবহার করি।
    অসচেতনতার ফলে অনেক ক্ষেত্রেই দুর্বল থেকে যায় এই পাসওয়ার্ড। আর এক বার পাসওয়ার্ড চুরি হয়ে গেলে, টাকা থেকে ব্যক্তিগত ছবি বা তথ্য, সবই হয়ে যেতে পারে বেহাত। এরপর আপনি পড়তে পারেন নানান ঝামেলায়। এজন্য ব্যবহার করুন শক্তিশালী পাসওয়ার্ড।
    অধিকাংশ ক্ষেত্রেই আমরা পাসওয়ার্ড সেট করতে নাম, জন্মতারিখ কিংবা ফোন নম্বর ব্যবহার করি। যা মোটেই উচিত নয়। এগুলোই দুর্বল পাসওয়ার্ড। যা সহজেই বেহাত হতে পারে। সাধারণত মনে রাখার সুবিধার জন্যই অনেকে নিজের বা প্রিয় জনের নাম, ফোন নম্বর কিংবা জন্ম তারিখ দিয়েই পাসওয়ার্ড তৈরি করে থাকেন।
    বিশেষজ্ঞদের মতে, অতি সহজেই চুরি হয়ে যায় এ ধরনের পাসওয়ার্ড। আবার একই পাসওয়ার্ড একাধিক জায়গায় দেওয়ার প্রবণতাও বিরল নয়। এটিও খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। কারণ একটি পাসওয়ার্ড চুরি হয়ে গেলেই অন্য পাসওয়ার্ডগুলোও অসুরক্ষিত হয়ে যায়। এজন্য ব্যবহার করুন শক্তিশালী পাসওয়ার্ড।
    এছাড়াও এখন বেশিরভাগ সোশ্যাল মিডিয়া অ্যাপ ও গুগলেও টু স্টেপ ভেরিফিকেশন ফিচার রয়েছে। এটি এনাবেল করে রাখুন। এতে আপনার অ্যাকাউন্ট সুরক্ষিত থাকবে অনেকবেশি। চলুন জেনে নেওয়া যাক কোন পাসওয়ার্ডগুলোকে বলা হয় শক্তিশালী পাসওয়ার্ড-
    > অক্ষর, সংখ্যা কিংবা বিশেষ ধরনের চিহ্নের মিশ্রণে তৈরি করতে হবে পাসওয়ার্ড।
    > পাসওয়ার্ডে নাম, ফোন নম্বর, জন্ম তারিখের মতো ব্যক্তিগত তথ্যের ব্যবহার একেবারেই না।
    > কিছুদিন পর পর বদল করুন পাসওয়ার্ড।
    > একই পাসওয়ার্ড বারবার ব্যবহার নয়।
    > একাধিক পাসওয়ার্ড ব্যবহার করার সুবিধা থাকলে গ্রহণ করতে হবে সেই সুবিধা। একটি পাসওয়ার্ডের থেকে অনেক বেশি সুরক্ষিত দ্বিস্তরীয় সুরক্ষার ব্যবস্থা।
    > কখনোই কারো সঙ্গে ব্যক্তিগত পাসওয়ার্ড শেয়ার করবেন না।

    Lab Scan