যুদ্ধে সক্ষম সবাইকে তৈরির নির্দেশ বিদ্রোহীদের

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ পূর্ব ইউক্রেনের রুশপন্থী বিদ্রোহীরা তাদের নিয়ন্ত্রিত এলাকায় যুদ্ধে সক্ষম সবাইকে তৈরি হওয়ার নির্দেশ দিয়েছে। শনিবার বিদ্রোহীদের স্বঘোষিত ‘দনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিক’ ও ‘লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিক’ রাষ্ট্র দুইটির প্রধানরা এই নির্দেশনা জারি করেন। দনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিকের প্রধান ডেনিস পুশিলিন এক ভিডিও বার্তায় বলেন, ‘সামরিক বাহিনীর রিজার্ভে থাকা আমার দেশবাসীর কাছে আহ্বান জানাচ্ছি সামরিক তালিকাভুক্তির কার্যালয়ে যোগাযোগ করার। দেশের সকল লোকের প্রতি আমি আহ্বান জানাচ্ছি যারা অস্ত্র বহন করতে পাারেন, তাদের পরিবার, সন্তান, স্ত্রী, মায়ের পাশে দাঁড়িয়ে তাদের প্রতিরক্ষা দেয়ার।’ ভিডিও বার্তায় পুশিলিন আরো জানান, ইউক্রেনের পরিকল্পনা করা হামলা তার বাহিনী ঠেকিয়ে দিয়েছে। কিন্তু ইউক্রেনের সামরিক বাহিনী হামলা অব্যাহত রেখেছে। অপরদিকে লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের প্রধান লিওনিদ পাসেচিনিকও একই ধরনের আদেশ জারি করেন। আদেশে তিনি বলেন, ‘আমি লুহানস্ক পিপলস রিপাবলিকের পুরো অঞ্চলে সর্বসাধারণকে যুদ্ধ প্রস্তুতির জন্য নির্দেশনা দিচ্ছি।’ এর আগে গত বৃহস্পতিবার থেকে রুশ সমর্থিত বিদ্রোহীদের সাথে ইউক্রেনের সামরিক বাহিনীর সংঘর্ষ শুরু হয়। সংঘর্ষের জন্য দুই পক্ষই পরস্পরকে দায়ী করছে। যুদ্ধের আশঙ্কায় বিদ্রোহীদের নিয়ন্ত্রিত এলাকা থেকে বেসামরিক লোকদের রাশিয়ায় সরিয়ে নেয়ার নির্দেশ জারি করেছেন বিদ্রোহী নেতারা। ২০১৪ সালে ইউক্রেনে রুশপন্থী সরকারের পতনের পর রাশিয়া দেশটিতে আগ্রাসন চালিয়ে ক্রিমিয়া অঞ্চলটি দখল করে নেয়। পাশাপাশি মস্কোর পৃষ্ঠপোষকতায় পূর্ব ইউক্রেনে বিপুল অঞ্চল দখল করে নেয় বিচ্ছিন্নতাবাদী বিদ্রোহী গোষ্ঠী। পূর্ব ইউক্রেনে রুশপন্থী বিদ্রোহীরা দুই রাষ্ট্র ‘দনেৎস্ক পিপলস রিপাবলিক’ ও ‘লুহানস্ক পিপলস রিপালিক’ প্রতিষ্ঠা করে। রাশিয়া ছাড়া আর কোনো দেশ ওই দুই রাষ্ট্রকে স্বীকৃতি দেয়নি।
সূত্র : আরটি

 

Lab Scan