যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল: দানশীল ব্যক্তিদের সহায়তায় বেতন পেলেন ১১ জন বেসরকারি কর্মচারী

বিএম আসাদ॥ চৌগাছা-ঝিনাইদহ জন সম্পৃক্ত স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা মডেল (সিজে) কর্মসূচির আওতায় যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে বেসরকারিভাবে নিয়োগকৃত ১৮ জন কর্মীর মধ্যে গতকাল ১১ জনকে এক মাসের বেতন প্রদান করা হয়েছে। দানশীল ব্যক্তিদের কাছ থেকে প্রাপ্ত অনুদানের টাকায় হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক বেসরকারি কর্মীদের বেতন দিচ্ছেন। গতকাল যাদেরকে বেতন দেয়া হয়েছে তাদের মধ্যে রয়েছেন ওয়ার্ডবয়, অ্যাটেনডেন্স, মালী, সিকিউরিটি গার্ড, স্বেচ্ছাসেবক, আয়া, ঝাড়–দার ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী।
জাহেদী ফাউন্ডেশন, হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী তানভীরুল ইসলাম সোহানসহ কয়েকজন দানশীল ব্যক্তি এ সকল কর্মীদের মাসিক বেতন দিচ্ছেন। এর ভেতর ওয়ার্ডবয়সহ ৭ জনকে মাসিক ৫ হাজার টাকা করে, ১১ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মীকে ৩ হাজার টাকা করে দেয়া হচ্ছে মাসিক বেতন। ১৮ জনের ভেতর জাহেদী ফাউন্ডেশন থেকে গতকাল ১১ জনকে দেয়া হয়েছে এ টাকা। চৌগাছা ও ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যসেবায় মডেল হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছে। পেয়েছে একাধিকবার রাষ্ট্রীয় ও বিদেশীদাতা সংস্থার কাছ থেকে পুরস্কার। চৌগাছা হাসপাতাল মডেল হওয়ার পেছনে ডিভাইন কোম্পানি লিমিটেডের বিশেষ অবদান রয়েছে। স্বাস্থ্যসেবার উন্নয়নে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি জনবল নিয়োগ করেছে ডিভাইন কোম্পানি। একই সাথে স্থানীয় সকল জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসন এ কাজে সহযোগিতা করেছে। এভাবে সকলের সম্মিলিত উদ্যোগে প্রায় দেড় যুগ ধরে স্বাস্থ্যসেবায় মডেল হওয়ার গৌরব অর্জন করেছে চৌগাছা হাসপাতাল। এরপর হাসপাতালটির চিকিৎসাসেবা কৌশল বাস্তবায়ন করে মডেল স্বাস্থ্যসেবার স্বীকৃতি পেয়েছে। জেলা পর্যায়ে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল। এ হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক জানিয়েছেন, জনগণের আদর্শ স্বাস্থ্যসেবা প্রদানে সরকারের পাশাপাশি দানশীল ব্যক্তিদের সম্পৃক্ত করার ফলপ্রসূ অগ্রগতি লক্ষ্য করে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সারাদেশে এ মডেল স্বাস্থ্যসেবা বাস্তবায়নের পরিকল্পনা গ্রহণ করে। চৌগাছা ও ঝিনাইদহকে আদর্শ হিসেবে নিয়ে দেশের সকল জেলা-উপজেলা হাসপাতালে প্রজ্ঞাপণ জারি করেছে চৌগাছা-ঝিনাইদহ জনসম্পৃক্ত ও স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা মডেল (সিজে) প্রকল্প প্রশাসনিক স্বচ্ছতা, মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবা, স্বাস্থ্যসেবা দানকারীদের সুরক্ষা, স্থানীয়ভাবে তহবিল ও সহায়তা সংগ্রহ করে স্থানীয়ভাবে স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা পরিচালনা করা হচ্ছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহামরিচালকের নেতৃত্বে গঠন করা হয়েছে জাতীয় কমিটির জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে পৌর মেয়রকে সভাপতি, জাতীয় সংসদ সদস্যকে সদস্য ও হাসপাতালের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে সদস্যসচিব করে এ কমিটি করা হয়েছে। জেলা পর্যায়ে ১৬ সদস্য ও উপজেলা পর্যায়ে ১০ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি গঠন করা হয়েছে। যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে এ প্রকল্প শুরু হয়েছে। হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আবুল কালাম আজাদ যশোর অঞ্চলের দানশীল ব্যক্তিদের সমন্বয় করে মডেল স্বাস্থ্যসেবা কর্মসূচি চালু করেছেন। বেসরকারিভাবে নিয়োগ করা হয়েছে ১৮ জন কর্মচারী। গতকাল এ সকল কর্মচারীদের ভেতর ১০ জনকে মাসিক বেতন দেন তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. আবুল কালাম আজাদ।

ভাগ