যশোর পৌরসভা ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী মুখোমুখী, ময়লার ভাগাড় যশোর

0

স্টাফ রিপোর্টার॥ যশোর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ ও পরিচ্ছন্নতা কর্মী দু’পক্ষই কঠোর অবস্থানে রয়েছে। হরিজন পল্লীর বিদ্যুৎ সংযোগ পুনঃস্থাপনের দাবিতে গত তিন দিন ধরে তারা কর্মবিরতি পালন করছে। আর পৌর কর্তৃপক্ষ বলছে, পরিচ্ছন্ন কর্মীরা অন্যায্য দাবিতে পৌরসভাকে জিম্মি করছে। তাদের বিদ্যুত বিল তাদেরকেই পরিশোধ করতে হবে। ময়লা আবর্জনা পরিস্কার না হওয়ায় পৌর এলাকার গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলো ময়লার ভাগাড়ে পরিণত হয়েছে।
আন্দোলনের চতুর্থ দিন বুধবার দুপুরে হরিজন পল্লীর বাসিন্দারা ঝাঁড়– মিছিল করেছে। টানা ৪ দিনের এই আন্দোলনে বেতন ভাতা বৃদ্ধিসহ বিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সংযোগ প্রতিস্থাপনপূর্বক নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ প্রদানের জোর দাবি জানান তারা। এ সময় হরিজন পল্লীর শত শত বাসিন্দা প্রেসক্লাবের সামনে সড়ক অবরোধ করে মেয়রের পদত্যাগ দাবিরও শ্লোগান দেন।
এদিকে বুধবার বিকেলে পৌরসভার পক্ষে থেকে এই ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন করেন পৌর মেয়র হায়দার গনি খান পলাশ। তিনি বলেন, আমরা সব কাউন্সিলররা মিলে বসে একটা সিদ্ধান্ত নিয়েছি, আমরা নিজেরা কিছু লোক নিয়োগ দিয়ে ও প্রশাসনকে সাথে নিয়ে ডাস্টবিনগুলো পরিষ্কার করাবো। তিনি আরো বলেন, আমরা নাগরিক সুবিধা দেওয়ার জন্য যা যা করার দরকার আমরা সেটা করব।
পৌর মেয়র আরও বলেন, যশোরের প্রেক্ষাপটে এখন আর হরিজনদের দরকার হয় না। তবুও ঐতিহ্য ধরে রাখার জন্য তাদের বেতন বাড়িয়ে কাজ করার সুযোগ দিয়েছে। কিন্তু পৌরসভার উন্নয়নের টাকা দিয়ে তাদের বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করলে পৌর উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত হচ্ছে। তাদের বকেয়া বিদ্যুৎ বিল সাড়ে পাঁচ কোটি টাকা পৌর কর্তৃপক্ষ পরিশোধ করে দেবে। কিন্তু এরপর থেকে তাদের বিদ্যুৎ বিল তাদেরকেই দিতে হবে।

Lab Scan