যশোরে ৩ শিশুর উপর পাশবিক নির্যাতন, ট্রাকচালকসহ আটক ২

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে আলাদা ঘটনায় তিন শিশুর উপর পাশবিক নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ অভিযোগ পেয়ে এক মসজিদের মুয়াজ্জিন ও এক ট্রাকচালককে আটক করেছে। ঘটনাগুলো ঘটেছে সদর উপজেলার মথুরাপুর,শেখহাটি ও উপশহরে।
পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত ৫ অক্টোবর সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টার দিকে সদর উপজেলার কচুয়া ইউনিয়নের মথুরাপুর গ্রামের আলেক মোল্লা (৬৫) নামে এক বৃদ্ধ তার প্রতিবেশীর কন্যা (৭)কে পান খাওয়ানোর লোভন দেখিয়ে বাড়িতে ডেকে নিয়ে যান। ঘরে নিয়ে টেলিভিশনের ভলিউমও বাড়িয়ে দেন। এরপর ওই শিশুকে পাশবিক নির্যাতনের চেষ্টা করেন। এসময় ভয়ে চিৎকার করতে থাকে শিশুটি। ঘরের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলো শিশুটির এক বোন (১০)। সে চিৎকার শুনে আরও কয়েকজন শিশুকে সাথে নিয়ে ওই ঘরে গেলে আলেক মোল্লা সেখান থেকে সটকে পড়েন। পরে সেখান থেকে ওই শিশুকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় শিশুটির পরিবার গত মঙ্গলবার কোতয়ালি থানায় একটি মামলা করেছেন।
এদিকে গত মঙ্গলবার দুপুরে শহরতলীর শেখহাটি বাবলাতলায় সাড়ে ৪ বছর বয়সের এক শিশুকন্যাকে পাশবিক নির্যাতনের চেষ্টা চালিয়েছেন চান হোসেন (২২) নামে একজন ট্রাকচালক। চান হোসেন একই এলাকার নওশের আলীর ছেলে। ওই শিশুটি তার প্রতিবেশীর কন্যা। ঘটনার সময় ট্রাকচালকের ছোটভাই খেলা করতে করতে শিশুকে তাদের বাড়িতে নিয়ে যায়। পরে ট্রাকচালক চান হোসেন শিশুটিকে ফুসলিয়ে তার ঘরে নিয়ে পাশবিক নির্যাতনের চেষ্টা চালান। এ সময় শিশুটি কান্নাকাটি করলে তাকে ছেড়ে দেয়া হয়। পরে বাড়ি ফিরে শিশুটি তার পরিবারের লোকজনকে বিষয়টি জানায়। কোতয়ালি থানা পুলিশের এসআই জিয়াউর রহমান জানান, শিশুটির পরিবার এ ঘটনায় থানায় অভিযোগ করেছে। এরপর বুধবার বিকেলে স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় অভিযুক্ত চান হোসেনকে তিনি আটক করেন।
কোতয়ালি থানা পুলিশের ইনসপেক্টর (অপারেশনস) শেখ তাসমীম হোসেন জানান, গত ৫ অক্টোবর উপশহর ই-ব্লকে চতুর্থ শ্রেণির এক স্কুলছাত্রের উপর পাশবিক নির্যাতন চালানো হয়েছে। ওই শিশুটি স্থানীয় একটি মসজিদের মুয়াজ্জিনের কাছে আরবি পড়তে যায়। ঘটনার দিন আসর বাদ শিশুটি তার কাছে পড়তে গেলে একাকি পেয়ে তার উপর পাশবিক নির্যাতন চালান মুয়াজ্জিন মাহমুদুল হাসান সোহেল (২৫)। পরে শিশুটি বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের লোকজনকে ঘটনাটি জানায়। এরপর গত ৭ অক্টোবর রাতে শিশুটির পরিবার কোতয়ালি থানায় মামলা করে। পুলিশ ওই রাতেই অভিযুক্ত মাহমুদুল হাসান সোহেলকে আটক করেন। তিনি পিরোজপুর সদর উপজেলার দক্ষিণ ইন্দুরকানি গ্রামের ইউনুস আলীর ছেলে। যশোর উপশহর ই-ব্লক এলাকার ওই মসজিদে তিনি ২ বছর ধরে মুয়াজ্জিনের দায়িত্ব পালন করছেন।

ভাগ