যশোরে ১০ মাসে ১২১ জন ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে গত ১০ মাসে ১২১ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। চলতি মাসে প্রতিদিন একজন করে আক্রান্ত হচ্ছেন। যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, গতকাল ৩ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন ছিলেন। এর ভেতর তারা চান ব্যাপারীকে (৫৫) গতকাল ভর্তি করা হয়। তার বাড়ি যশোরের শার্শা উপজেলার ভবেরবেড় গ্রামে। বেনাপোল রেলস্টেশনে তিনি কুলী মজুরের কাজ করেন। তিনি গত ৬ দিন ধরে জ্বরে ভুগছেন। নিজ বাড়িতে তারা চান ব্যাপারীর ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন বলে তিনি জানিয়েছেন। অপরজন শহিদুর রহমান (৪৫) এক সপ্তাহ ধরে জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার পর গত শুক্রবার বিকেলে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। শহিদুর রহমান সানপ্লাস ইলেক্ট্রনিক্স কোম্পানি যশোরের এরিয়া ম্যানেজার। তার বাড়ি শহরের পুরাতন কসবা কাজীপাড়ায়। ঢাকা ও চট্টগ্রামে বেড়ানোর পর তিনি জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। এর আগে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সাগর মান্না (৩০) নামে এক ব্যক্তি ডেঙ্গু জ্বর নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। তার বাড়ি শহরের বেজপাড়ায়। মাইকপট্টিতে সাগর ইলেক্ট্রনিক্স এর মালিক সাগর মান্না কোথাও যাননি। নিজ বাসায় ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। এভাবে প্রতিদিন কেউ না কেউ ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হচ্ছেন। চলতি নভেম্বরের ১৩ দিনে ১৩ জন ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে গতকাল পর্যন্ত যশোরে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়েছেন ১শ’ ২১ জন। যশোর সিভিল সার্জন অফিসের এমওসিএস ডা. রেহেনেওয়াজ এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ডেঙ্গু এক প্রকার ভাইরাস। স্ত্রী জাতীয় (এডিস) মশা এ ভাইরাস বহন করে। ওই মশা কাউকে কামড় দিলে তার ডেঙ্গু জ্বর হয়। তাই, ডেঙ্গু প্রতিরোধে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে জনপ্রতিনিধি, পৌর মেয়র, ইউপি চেয়ারম্যান, কাউন্সিলর, ইউপি সদস্যসহ সকলকে অবহিত করা হয়েছে। মশা নিধন কার্যক্রম জোরদার হলে মশার বংশ ধ্বংস হতে পারে। এতে ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমে যাবে।

Lab Scan