যশোরে স্কুলছাত্র ছুরিকাঘাতের ঘটনায় ৩ কিশোরের নামে মামলা,আটক এক

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর জিলা স্কুলের ছাত্র রাজিবুল হোসেন রাতিনকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় ৩ কিশোরের বিরুদ্ধে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। আহতের পিতা শহরের শংকরপুর আশ্রম রোডের বাসিন্দা কামাল হোসেন তুহিন বৃহস্পতিবার দুপুরে মামলাটি দায়ের করেন। অপরদিকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় জড়িত অভিযোগে কপিল চন্দ্র সাহা নামে এক কিশোরকে আটক করেছে পুলিশ। সে শহরের বারান্দী নাথপাড়ার জনৈক বিষুর বাড়ির ভাড়াটিয়া কুমারেশ চন্দ্র সাহার ছেলে।
রাজিবুল হোসেন রাতিনের পিতা কামাল হোসেন তুহিনের অভিযোগ, গত ১৪ মার্চ তার ছেলে রাতিনের সাথে বেজপাড়া চোপদারপাড়া আকবরের মোড় এলাকার জুবায়েরের ছেলে নোমানের তুচ্ছ বিষয় নিয়ে ভুল বোঝাবুঝি হয়। এর জের ধরে গত বুধবার বিকেল সাড়ে পাঁচটার দিকে জিলা স্কুলের উত্তর পাশের রাস্তায় রাতিনকে দেখতে পেয়ে নোমান এবং সহযোগী কপিল চন্দ্র সাহা ও বেজপাড়া চোপদারপাড়া আকবরের মোড় এলাকার বাবুর ছেলে অন্তর তার ওপর আক্রমণ করে। ওই সময় রাতিন কোচিং সেন্টার থেকে বাড়ি ফিরছিলো। তারা চাকু দিয়ে রাতিনের পেটের বাম পাশে ও ডান পায়ের রানে কয়েকটি আঘাত করলে সে গুরুতর জখম হয়। এছাড়া তারা তাকে কিলঘুষি মারে ও কাছে থাকা একটি মোবাইল ফোনসেট ছিনিয়ে নেয়। পরে স্থানীয় লোকজন এসে রাতিনকে উদ্ধার করে যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। পুলিশ জানায়, রাতিনকে ছুরিকাঘাতের ঘটনায় তার পিতা কামাল হোসেন তুহিন ৩ জনকে আসামি করে বৃহস্পতিবার দুপুরে কোতয়ালি থানায় মামলা করেন। আসামিরা হলো-কপিল চন্দ্র সাহা, নোমান ও অন্তর। এর মধ্যে কপিল চন্দ্র সাহাকে বৃহস্পতিবার দুপুর দেড়টার দিকে বারান্দী নাথপাড়া থেকে আটক করেছেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালি থানা পুলিশের এসআই আ ফ ম মনিরুজ্জামান।

Lab Scan