যশোরে সপ্তাহব্যাপী বই মেলার উদ্বোধন

0

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে গতকাল থেকে ৭দিন ব্যাপী বই মেলা শুরু হয়েছে। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সহযোগিতায় মুন্সি মেহেরুল্লাহ ময়দানে (টাউন হল মাঠে) মঙ্গলবার বিকেলে ফিতা কেটে ও বেলুন উড়িয়ে এই মেলার উদ্বোধন করেন যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আনোয়ার হোসেন। মেলা বাস্তবায়নে রয়েছে যশোর জেলা প্রশাসন ও যশোর ইনস্টিটিউট।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে ওই ময়দানের রওশন আলী মঞ্চে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি বক্তব্যে উপাচার্য প্রফেসর ড. মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, একজন মানুষকে প্রকৃত মানুষ হতে হলে তাকে শিল্প সাহিত্য চর্চা অব্যাহত রাখতে হবে। অথচ আমাদের সন্তানরা সেগুলো না করে ক্রমাগতভাবে স্ক্রিন অ্যাডিক্টেড হয়ে পড়ছে। যা মাদকাসক্তের মতোই ভয়াবহ। এ অবস্থা থেকে নতুন প্রজন্মকে রক্ষা করতে পাঠ্যভ্যাসে আগ্রহী করতে হবে।
তিনি বলেন, আমাদের সমাজে শুধু ডাক্তার-বিজ্ঞানী তৈরি হলে হবে না। এসব ডিগ্রিধারী মানুষ এক সময় অমানুষ হয়ে যায়; যদি না তাদের মধ্যে মানসিক মূল্যবোধ তৈরি না হয়। তাই মানবিক মূল্যবোধের মানুষ বেশি বেশি গড়ে তুলতে হবে। একজন শিক্ষক হিসাবে আজ আমার ভালো লাগছে যশোরের মতো জায়গায় আমার হাতে বই মেলা উদ্বোধন হচ্ছে।
ড. আনোয়ার আরও বলেন, আমরা চাই নতুন প্রজন্ম ও শিক্ষার্থীরা লাইব্রেরিতে যাক। কিন্তু এই প্রজন্ম কেন জানি বই বিমুখ হয়ে যাচ্ছে। এই অবস্থান থেকে আমাদের নতুন প্রজন্মকে ফিরিয়ে আনতে হবে। এই যে নতুন প্রজন্ম বই বিমুখ হয়ে স্ক্রিন অ্যাডিক্টেড হচ্ছে; এটা কিন্তু মাদকাসক্তের মতো ভয়াবহ। এখান থেকে আমাদের সন্তানদের ফিরিয়ে আনতে হবে। এসবের জন্য বিভিন্ন উন্নয়ন মেলা, বই মেলা কার্যকরী ব্যবস্থা। এসব মেলায় আমাদের সন্তানদের হাত ধরে আনতে হবে। বিভিন্ন সাহিত্য চর্চার বই কিনে দিতে হবে। এসময় তিনি একাডেমির বাইরেও জ্ঞান চর্যায় আগহ্র সৃষ্টির জন্য সব মহলের মানুষকে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান জানান।
যশোরের জেলা প্রশাসক মো. তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রালয়ের যুগ্ম সচিব মোখলেচুর রহমান আকন্দ, যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদার, মুক্তিযুদ্ধকালীন বৃত্তর যশোরের বিএলএফের উপ প্রধান মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট রবিউল আলম, যশোর ইনস্টিটিউটের সাধারণ সম্পাদক ডা.আবুল কালাম আজাদ, যশোরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) রফিকুল হাসান, জেলা শিক্ষা অফিসার এ কে এম গোলাম আজম।
আলোচনা শেষে যশোরের বিভিন্ন সাংস্কৃতিক সংগঠনের আয়োজনে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।
আয়োজকরা জানান, সরকারের সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পৃষ্ঠপোষকতায় এবং বাংলাদেশ পুস্তক প্রকাশক ও বিক্রেতা সমিতির সহযোগিতায় সারাদেশে ৯টি জেলায় পর্যায়ক্রমে এই বই মেলা শুরু হয়েছে। যশোরে সাত দিনব্যাপী বই মেলা শেষ হবে আগামী ১৩ ডিসেম্বর। মেলায় ঢাকা-যশোরসহ দেশের বিভিন্ন এলাকার প্রকাশনার অংশগ্রহণে ৬২টি বইয়ের স্টল বসেছে। প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত মেলা চলবে। বই মেলা উপলক্ষে প্রতিদিন বিকেলে রওশন আলী মঞ্চে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান ও কুইজ প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছে বলে আয়োজকরা জানান।

Lab Scan