যশোরে ময়মুর হত্যাকাণ্ডে থানায় মামলা, পিতা-পুত্রকে জিজ্ঞাসাবাদ

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে সাবেক স্কুলশিক্ষক এসএম ময়মুর হোসেনকে হত্যার অভিযোগে কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহতের ভাই নজরুল ইসলাম অজ্ঞাতনামাদের আসামি করে মামলাটি করেছেন। নজরুল ইসলাম মণিরামপুর উপজেলার আমিনপুর গ্রামের মৃত কামাল উদ্দিন সরদারের ছেলে।
মামলায় নজরুল ইসলাম উল্লেখ করেছেন, তাদের সম্পর্কে বেয়াই বাঘারপাড়া উপজেলার কেশবপুর গ্রামের বাসিন্দা হাসান আলী (৬৫)। তার কাছে চাকরি সংক্রান্ত ৮ লাখ ৩৫ হাজার টাকা পাবেন ময়মুর হোসেন। গত ১১ সেপ্টেম্বর দুপুরে পাওনা ওই টাকা আনতে বাসা থেকে বের হন তিনি। এরপর রাত সাড়ে ৯টার দিকে স্ত্রীকে মোবাইল ফোন করে ময়মুর হোসেন জানান যে, তিনি খাজুরা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় রয়েছেন। রাতে আর বাসায় ফিরবেন না। কিন্তু পরদিন বাসায় ফিরে না আসায় স্বজনেরা তাকে খোঁজাখুঁজি করেন। কিন্তু সন্ধান না পাওয়ায় ময়মুর হোসেনের স্ত্রী ১৩ সেপ্টেম্বর কোতয়ালি থানায় জিডি করেন। এরপর গত ১০ অক্টোবর বিকেলে যশোর-মাগুরা সড়ক সংলগ্ন পাঁচবাড়িয়ার একটি ঝোপের ভেতর ময়মুর হোসেনের অর্ধগলিত লাশ পাওয়া যায়। নজরুল ইসলামের ধারনা, অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিরা তার ভাইকে হত্যা করে ওই ঝোপের ভেতর ফেলে রেখেছিলো।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা কোতয়ালি থানা পুলিশের ইনসপেক্টর (অপারেশনস) পলাশ বিশ্বাস জানান, হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনে তারা কাজ করে যাচ্ছেন।
ডিবি পুলিশের এসআই মো. মফিজুল ইসলাম জানান, বাঘারপাড়া উপজেলার কেশবপুর গ্রামের হাসান আলী এবং তার ছেলে কামরুল ইসলাম টিটোকে তারা হত্যাকা-ের বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছেন। এছাড়া সন্দেহভাজন সকলকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

Lab Scan