যশোরে মাইক্রোবাস চাপায় মাদ্রাসা ছাত্র নিহত

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরে মাইক্রোবাসের চাপায় হাফেজ মাহমুদুল হাসান ওরফে সাকলায়েন (১৮) নামের এক মাদ্রাসা ছাত্র নিহত হয়েছেন। এ সময় মিন্টু হোসেন নামে এক রিকশা চালক আহত হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে শহরের বারান্দীপাড়া ঢাকা রোডের হাফেজি মাদ্রাসার সামনে। পুলিশ ঘাতক মাইক্রোবাসটি আটক করেছে। নিহত মাহমুদুল হাসান সাকলায়েন ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার জলিলপুর গ্রামের মো. আব্দুল আলীমের ছেলে। নিহতের মামা যশোর শহরের পূর্ববারান্দীপাড়ার সরোয়ার হোসেন সান্টু জানিয়েছেন, মাহমুদুল হাসান আল জামিয়াতুল ইসলামিয়া মাদ্রাসা দড়াটানা যশোরের ছাত্র। হাফেজি শেষ করে গত বুধবার আলীম (সরেহ বেকাইয়া) পরীক্ষা দেয়। এরপর গতকাল সকাল ৭টার দিকে মাদ্রাসা থেকে পূর্ববারান্দীপাড়ায় তার মামার বাসায় যাচ্ছিলেন। মামার বাসায় যাওয়ার পথে হাফেজি মাদ্রাসার সামনে রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে রিকশা চালক মিন্টু হোসেনের সাথে কথা বলছিলেন। এ সময় খুলনা অভিমুখি একটি মাইক্রোবাস তাদের চাপা দেয়। এতে তারা দু’জনই গুরুতর আহত হন। স্থানীয় আহতদের উদ্ধার করার পর পৌণে ৮টার দিকে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে যান। এ সময় জরুরি বিভাগের চিকিৎসক জসীম উদ্দীন হাফেজ মাহমুদুল হাসানকে মৃত ঘোষণা করেন এবং রিকশাচালক মিন্টু হোসেনকে হাসপাতালে ভর্তি করে দেন। রিকশাচালক মিন্টু হোসেনের বাড়ি ঝিকরগাছা উপজেলার ছুটিপুর গ্রামে। তিনি যশোর শহরের শংকরপুর এলাকার আব্দুর রাজ্জাকের বাসার ভাড়াটিয়া। তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। পুলিশ জানিয়েছেন, দুর্ঘটনা কবলিত মাইক্রোবাসটি আটক করা হয়েছে। তবে চালক পলাতক রয়েছে।

Lab Scan