যশোরে প্রতিবন্ধী যুবতী হত্যায় সৎপিতার বিরুদ্ধে চার্জশিট

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর সদর উপজেলার লেবতুলা ইউনিয়নের আগ্রাইল গ্রামের প্রতিবন্ধী যুবতী সুমি খাতুন হত্যা মামলার চার্জশিট আদালতে দাখিল করেছে পুলিশ। সৎ পিতা নাজমুল আহসানকে অভিযুক্ত করে এই চার্জশিট দেয়া হয়েছে। নাজমুল আহসান বাঘারপাড়া উপজেলার ভদ্রডাঙ্গা গ্রামের মৃত কুবাদ আলীর ছেলে। মামলার অভিযোগে জানা গেছে, নাজমুল আহসান ও তার স্ত্রী রেশমা খাতুন রাজধানী ঢাকায় থাকতেন। সেখানে তাদের সাথে থাকতো শারীরিক প্রতিবন্ধী সুমি খাতুন। সে রেশমা খাতুনের আগের পরে মেয়ে। নাজমুল আহসান তার সৎ পিতা। সুমিকে ব্যবহার করে তার মা ও সৎ পিতা ঢাকায় ভিা করতেন। গত আগস্ট মাসে ঈদে রেশমা খাতুন স্বামী ও মেয়েকে নিয়ে আগ্রাইল গ্রামে পিতার বাড়িতে বেড়াতে আসেন। এরপর ২৮ আগস্ট রাতে টাকা-পয়সা নিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে গোলযোগ হয়। এর জের ধরে গভীর রাতে নাজমুল আহসান বারান্দায় ঘুমিয়ে থাকা তার পালিত মেয়ে সুমিকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে পালিয়ে যান। পরদিন নিহত সুমির মা রেশমা খাতুন স্বামীর বিরুদ্ধে কোতয়ালি থানায় হত্যা মামলা করেন। এর কিছুদিন পর পুলিশ ঢাকায় অভিযান চালিয়ে অভিযুক্ত নাজমুল আহসানকে আটক করে।

ভাগ