যশোরে দুই যুবককে সৌদিতে পাঠানোর নামে ৯ লাখ টাকা হাতানোর অভিযোগ

0

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দুই যুবককে সৌদি আরবে পাঠানোর কথা বলে প্রতারণার মাধ্যমে প্রায় ৯ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে হুমায়ুন কবীর নামে এক ব্যক্তির বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) যশোরে আদালতে মামলা করেছেন শহরের পুরাতন কসবা ঘোষপাড়ার আব্দুল গনি বিশ্বাসের ছেলে মো. আবুল হাশেম। সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. মঞ্জুরুল ইসলাম অভিযোগ আমলে নিয়ে আসামির প্রতি সমন ইস্যুর আদেশ দিয়েছেন।
অভিযুক্ত হুমায়ুন কবীর চাঁদপুরের মতলব উপজেলার শিবপুর গ্রামের মৃত মোহাম্মদ হোসেন সরকারের ছেলে। বর্তমানে তিনি যশোরের ঝিকরগাছা উপজেলার কৃষ্ণনগর গ্রামে বসবাস করছেন।
মামলার বিবরণে জানা গেছে, আসামি হুমায়ুন কবীর মামলার বাদী আবুল হাশেমের আত্মীয় এম আবু জাফরের পূর্ব পরিচিত। আবুল হাশেম তার দুই আত্মীয় মেহেদী হাসান ও সোহেল রহমানকে বিদেশে পাঠাতে ইচ্ছুক এই কথা জানতে পেরে আসামি হুমায়ুন কবীর তাকে জানান যে, তার এক আত্মীয় দীর্ঘদিন ধরে সৌদি আরবে রয়েছেন এবং বহু মানুষকে কাজের ব্যবস্থা করে দিয়েছেন। তিনি তার মাধ্যমে ওই দুই যুবককে সৌদি আরবে পাঠাতে পারবেন বললে এতে রাজি হয়ে যান আবুল হাশেম। এ সময় জানান জনপ্রতি সাড়ে ৪ লাখ টাকা করে দুজনের জন্য মোট ৯ লাখ টাকা দিতে হবে। এরপর ২০২১ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর থেকে বিভিন্ন সময় হুমায়ুন কবীরকে ৮ লাখ ৮৭ হাজার টাকা দেন আবুল হাশেম। কথা ছিলো টাকা নেওয়ার পরবর্তী এক মাসের মধ্যে যুবকদ্বয়কে সৌদি আরবে পাঠিয়ে দিবেন। কিন্তু এক মাসের মধ্যে যুবকদ্বয়কে সৌদিতে পাঠাতে ব্যর্থ হওয়ায় টাকা ফেরত চান আবুল হাশেম। কিন্তু হুমায়ুন কবীর তাকে টাকা ফেরত দিতে অস্বীকার করেন। এ নিয়ে বাড়াবাড়ি করলে ক্ষতি করার হুমকিও দেন তিনি। ফলে কোনো উপায় না পেয়ে আদালতের আশ্রয় নিয়েছেন আবুল হাশেম।

 

Lab Scan