যশোরে ওষুধের দোকান থেকে নিষিদ্ধট্যাপেন্টডল উদ্ধার, আটক ৪

0

 

 

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোর শহরের এমএম আলী রোডে সিনা মেডিকেল স্টোর নামে একটি ওষুধের দোকান থেকে ৭শ পিস নিষিদ্ধ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধার করেছে ডিবি পুলিশ। এ ঘটনায় ওষুধের দোকান মালিকসহ ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।
ডিবি পুলিশের এসআই সোলায়মান আক্কাস সোমবার (১৯ জুন) জানান, তারা গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন, এমএম আলী রোডে সিনা মেডিকেল স্টোরে মাদকসেবীদের কাছে নিষিদ্ধ ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট বিক্রি করা হচ্ছে। এ খবর পেয়ে রোববার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ওই ওষুধের দোকানে অভিযান চালানো হয়। এ সময় দোকানে তল্লাশি চালিয়ে ৭শ পিস ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট উদ্ধার করেন তারা। একই সাথে দোকান মালিক ওমর ফারুক ও কর্মচারী তারিফ হাসানকে আটক করেন। ওমর ফারুক সদর উপজেলার ভেকুটিয়া গ্রামের আব্দুর রহমানের ছেলে ও তারিফ হাসান শহরের বারান্দীপাড়া বটতলা এলাকার মনিরুজ্জামানের ছেলে।
আটকের পর তারা স্বীকার করেন যে, ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট বিরামপুর কালীতলার রবিউল ইসলামের ছেলে বায়েজিদ ইসলাম মুকুলের কাছ থেকে সংগ্রহ করেছেন। পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে বিরামপুর কালীতলায় অভিযান চালিয়ে বায়েজিদ ইসলাম মুকুলকে আটক করা হয়। এ সময় বায়েজিদ ইসলাম মুকুল ডিবি পুলিশকে জানান, তিনি পালবাড়ি পাওয়ার হাউসপাড়ার রায়হান উদ্দিন রাসেলের কাছ থেকে ট্যাপেন্টাডল ট্যাবলেট সংগ্রহ করে সিনা মেডিকেল স্টোরে বিক্রি করতেন। তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে পালবাড়ি পাওয়ার হাউসপাড়ায় অভিযান চালিয়ে ভাড়া বাড়ি থেকে রায়হান উদ্দিন রাসেলকে আটক করা হয়। রায়হান উদ্দিন রাসেল পূর্ব বারান্দী সরদার পাড়ার সেকেন্দার আলীর ছেলে। বর্তমানে তিনি পালবাড়ি পাওয়ার হাউসপাড়ার জনৈক রাসেলের বাড়িতে ভাড়া থাকেন। এ ঘটনায় কোতয়ালি থানায় মামলা হয়েছে।

 

 

Lab Scan