মোল্লাহাটে ১৪২ পাঠাগারে দুই লক্ষ বই বিতরণ করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব

0

বাগেরহাট সংবাদদাতা॥ বাগেরহাটের মোল্লাহাটে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন লাইব্রেরী ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে দুই লাখ বই বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন। বই ছাড়াও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে লাইব্রেরীর জন্য বুকসেল্ফসহ প্রয়োজনীয় সামগ্রী প্রদাণ করা হয়। বৃহস্পতিবার (১১ নভেম্বর) দুপুরে মোল্লাহাট উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এই দুই লাখ বই বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম। খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মো: ইসমাইল হোসেনের সভাপতিত্বে বই বিতরণ অনুষ্ঠানে বাগেরহাটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট নাজমুল হুদা, ফকিরহাট সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমডি ছয়রদ্দিন আহমেদ, মোল্লাহাট উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহীনুল আলম ছানা, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. ওয়াহিদ হোসেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) অনিন্দ্য মন্ডল, মো্ল্লাহাট উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার মোস্তাফিজুর রহমান, বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা সিএসএস এর পরিচালক ডেভিড টমাস গোমেস, ব্যবস্থাপক তপন কুমার পাল, এ্যাসাইনমেন্ট অফিসার হাফিজ আল আসাদ, মোঃ আবুল হালিম আজাদ, মোঃ আদাবুর রহমান, মোল্লাহাট উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানসহ বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা উপস্থিত ছিলেন। পরে করোনায় ক্ষতিগ্রস্থ ২৫০ জনকে সিএসএস‘র সহযোগিতায় ২ হাজার টাকা করে ৫ লক্ষ টাকা বিতরণ করা হয়। মোল্লাহাট উপজেলার জন্য একটি লোগো উন্মোচন করেন সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে কে এম আলী আজম বলেন, দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, আমরা উন্নত বাংলাদেশ গড়তে চাই। তবে মনে রাখতে হবে কেবল অবকাঠামোগত উন্নতি হলেই হবেনা। আমাদের মানবিক ও উন্নয়ন করতে হবে। এজন্য বই পড়ার কোন বিকল্প নেই। পাঠ্য বইয়ের পাশাপাশি বিভিন্ন বিষয়ে প্রচুর বই পড়তে হবে। এখনও আমাদের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে ছেলে-মেয়েরা অনেকটা বাধ্য হয়ে পড়ালেখা করে। এই পরিবেশ বদলাতে হবে। আনন্দদায়ক উপায়ে শিক্ষা প্রসারে কাজ করতে হবে।
ইউএনও মো. ওয়াহিদ হোসেন বলেন, ‘আলোকিত ও মানবিক মোল্লাহাট’ বিনির্মাণের লক্ষ্যে আমরা কাজ করছি। এর অংশ হিসেবে লাইব্রেরী স্থাপন ছাড়াও প্রতিটি বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ফুলের বাগান করা হয়েছে। এজন্য এরই মধ্যে প্রায় ১০ হাজার চারা বিতরণ করা হয়েছে। পাশাপাশি ৩০০ বেকার তরুণদের জন্য ফ্রিলান্সিং ও ইংরেজি প্রশিক্ষণ এবং ২৫০ নারী উদ্যোক্তাদের প্রশিক্ষণ ও ঋণ বিতরণ করা হচ্ছে। মোঃ ওয়াহিদ হোসেন আরও বলেণ, মুজিববর্ষ উপলক্ষে এই লক্ষ্যে উপজেলার সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বেসরকারি উদ্যোগে প্রতিষ্ঠিত লাইব্রেরিগুলোতে মোট দুই লাখ বই বিরতণ করা হচ্ছে। উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় বিদ্যা অনুরাগীদের সহায়তায় এই কার্যক্রম হাতে নেওয়া হয়েছে। এর মাধ্যমে উপজেলার ১৪২টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে লাইব্রেরির কার্যক্রম সক্রিয় করা হচ্ছে। ডিসেম্বরের মধ্যে এই কার্যক্রম সম্পন্ন করা হবে। বই বিতরণ শেষে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব কে এম আলী আজম মোল্লাহাট উপজেলা চত্বরে উপজেলা পাঠাগার উদ্বোধন করেন। পরে মোল্লাহাট উপজেলা সদরের শহীদ হেমায়েত উদ্দিন মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যোগ দেন তিনি।

Lab Scan