মোবাইল ফোনে বাকবিতণ্ডার বিজিবি সদস্যের স্ত্রীর আত্মহত্যা

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিজিবি সদস্য স্বামীর অত্যাচারের শিকার হয়ে কলেজছাত্রী রিয়ালিস সুলতানা বিথী (২১) গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন। এ ঘটনায় আত্মত্যার প্ররোচনায় থানায় অভিযোগ দেওয়া হয়েছে। গত বুধবার বিকেলে যশোরের চৌগাছা উপজেলার মুক্তারপুরে এ ঘটনা ঘটে।
রিয়ালিস সুলতানা বিথী ওই গ্রামের রাশিদুল ইসলাম খাঁর একমাত্র কন্যা। তিনি যশোর সরকারি এমএম কলেজের অনার্সের ছাত্রী তার চাচাতো ভাই আসাদুজ্জামান আসাদ জানিয়েছেন, ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার আগমুন্দীয়া গ্রামের জাহাঙ্গীর আলম বাদশাহ’র পুত্র বিজিবি সদস্য ইসমাইল হোসেন রিয়াদ প্রেম করে দেড় বছর আগে বিথীকে বিয়ে করেন। গত ৬ মাস আগে বিথীকে রিয়াদ চট্টগ্রামে চাকরি করার সুবাদে বিথী তার পিত্রালয়ে অবস্থান করেন। বুধবার বিকেলে মোবাইল ফোনে রিয়াদ তার স্ত্রীর সাথে কথা বলেন। এ সময় তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। বিতণ্ডার এক পর্যায়ে রিয়াদ তার স্ত্রী বিথীকে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করতে বলেন। এ সময় দেরি না করে বিথী তার পিত্রালয়ে ঘরের ভেতর আঁড়ার সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন।
আসাদুজ্জামান আসাদ জানান, রিয়াদের সাথে অন্য মহিলার পরকীয়া রয়েছে। পরকীয়ায় আসক্ত হওয়ার বিষয়টি নিয়ে তাদের স্বামী ও স্ত্রীর ভেতর গোলযোগ বাঁধে। এর আগে থেকে বিভিন্নভাবে রিয়াদ তার স্ত্রীর ওপর অত্যাচার করে। যে কারণে বিথী গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেন। পরে মেয়ের পিতা আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ এনে চৌগাছা থানায় রিয়াদের বিরুদ্ধে অভিযোগ দিয়েছেন। চৌগাছা থানার এসআই মোশারফ হোসেন ঘটনাস্থলে পৌঁছে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে লাশ উদ্ধার করে এবং ময়না তদন্তের জন্য যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে পাঠান। ময়না তদন্ত শেষে বিকেলে লাশ নিয়ে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়েছে।

ভাগ