মোংলায় কয়লা বোঝাই জাহাজ ডুবি

0

মোংলা (বাগেরহাট)সংবাদদাতা॥ মোংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের কানাইনগর সংলগ্ন এলাকায় কয়লা বোঝাই লাইটার জাহাজ এমভি প্রিন্স অব ঘষিয়াখালী-১ ডুবে গেছে। এ সময় সাঁতরিয়ে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছেন ডুবে যাওয়া লাইটারের ১১ জন কর্মচারী। ডুবে যাওয়া লাইটার এমভি প্রিন্স অব ঘষিয়াখালী মোংলা বন্দরের হাড়বাড়িয়া এলাকায় অবস্থান করা একটি জাহাজ থেকে কয়লা বোঝাই করে যশোরের নওয়াপাড়া শিল্পশহরে যাচ্ছিলো। গতকাল শুক্রবার দুপুর আড়াইটার দিকে লাইটারটি নদীতে ঘূর্ণিঝড়ের সময় তীব্র বাতাসের কবলে পড়ে ডুবোচরে আটকে তলা ফেটে ডুবে যায়।
লাইটার জাহাজটি এখন মোংলা ও পশুর নদীর মোহনাস্থল চরকানা নামক স্থানে চরে উঠিয়ে রাখা হয়েছে।
বাংলাদেশ লাইটারেজ শ্রমিক ইউনিয়নের মোংলা শাখার সহসভাপতি মাইনুল হোসেন মিন্টু জানান, বন্দরের ফেয়ারওয়ের হাড়বাড়িয়া এলাকায় অবস্থানে থাকা কয়লাবাহী একটি বাণিজ্যিক জাহাজ থেকে ৮০০ মেট্রিক টন কয়লা বোঝাই করে যশোরের নওয়াপাড়া ঘাটে যাওয়ার জন্যে ছেড়ে আসে লাইটারটি। দুপুরে পশুর নদীর কানাইনগর এলাকায় আসলে ঘূণিঝড় মিধিলির তীব্র বাতাসের কবলে পড়ে লাইটারটি ডুবে যায়।
মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সহকারী হারবার মাস্টার (অপারেশন) আমিনুর রহমান জানান, পশুর চ্যানেলে লাইটার ডুবির ঘটনার পর বন্দরে জাহাজ চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।

 

Lab Scan