মেসেঞ্জারে এলো সাউন্ড ইমোজি

    0

    লোকসমাজ ডেস্ক॥ পছন্দ, ভালোবাসা, কৃতজ্ঞ, হা‌সি, কান্না, দুঃখ আর রাগ—নানা রকমের ইমোজি ব্যবহার করেই নিজের আবেগ প্রকাশ করা যায়। কখনো কখনো একটি ইমোজির ব্যবহার শব্দের চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়ে। তাই ইমোজিকে আরেকটু সমৃদ্ধ করলো ফেসবুক।
    আজ বিশ্ব ইমোজি দিবস। ইমোজিপিডিয়ার প্রতিষ্ঠাতা জেরেমি বার্গ ২০১৪ সালে দিবসটির প্রচলন করেন। এদিন উপলক্ষে ফেসবুক মেসেঞ্জারে এলো সাউন্ড ইমোজি বা সাউন্ড এফেক্ট বিশিষ্ট ইমোজি। এ‌তে ইমোজির পাশাপ‌াশি শোনা যাবে শব্দও। একে বলা হচ্ছে, কথা বলতে পারা ইমোজি।
    সাউন্ড ইমোজিস-এর সাউন্ড বিভিন্ন রকমের হতে পারে। যেমন- তা সাধুবাদ জানানোর হতে পারে, ভয়ঙ্কর হাসি বা আপনার পছন্দের শিল্পী যেমন রেবেক্কা ব্ল্যাকের অডিও স্নিপেটস, টিভি শো’র মতো ছবি, এছাড়া ইউনিভার্সাল টেলিভিশন, নেটফ্লিক্স বা সাউন্ডল্যান্ডস ব্রিজারটনের যথাক্রমে এনবিসি এবং ব্রুকলিন নাইন-নাইনের সাউন্ডও হতে পারে।
    ফেসবুকের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, আমরা পুরো সাউন্ডমোজি লাইব্রেরি নিয়ে আসছি আপনাদের জন্য। সেখান থেকে আপনারা পছন্দ করতে পারবেন। যা নতুন সাউন্ড এফেক্ট অনুযায়ী আপডেট হতে থাকবে। এছাড়া থাকবে বিখ্যাত সব সাউন্ড। প্রত্যেক সাউন্ডের প্রতিনিধিত্ব করবে কোনো না কোনো ইমোজি।
    ১৯৯০–এর দশকে ইমোজির ব্যবহার শুরু হয়। ইমোজি একটি জাপানিজ শব্দ, যার অর্থ ‘ছবি শব্দ’। এবার ছবির স‌ঙ্গে শব্দ যোগ হওয়ায় বেশ মাননসই লাগছে ইমোজিগু‌লোকেও!

    Lab Scan