মেসির পেনাল্টি মিস, এমবাপের শেষ মুহূর্তের গোলে রিয়াল-বধ পিএসজির

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ দাপট দেখিয়ে খেলেও ঘরের মাঠে হতাশায় ডুবতে বসেছিল প্যারিস সেন্ট জার্মেই (পিএসজি)। ম্যাচের একদম অন্তিম মুহূর্তে সেই হতাশা কাটিয়ে দিলেন কিলিয়ান এমবাপে। বলা যায়, লিওলেন মেসিকে বাঁচিয়ে দিলেন এমবাপে। আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড যে পেনাল্টি মিস করে বসেছিলেন। এমবাপের শেষ সময়ের গোলে হাঁফ ছেড়ে বেঁচেছেন আর্জেন্টাইন খুদেরাজ, বেঁচেছে পিএসজি। মঙ্গলবার রাতে পার্ক ডি প্রিন্সেসে এমবাপের একমাত্র গোলে ভর করে রিয়াল মাদ্রিদকে ১-০ ব্যবধানে হারিয়েছে পিএসজি। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে শেষ ষোলোর প্রথম লেগের খেলা ছিল এটি। ম্যাচে ৫৮ শতাংশ বল দখলে রেখে মোট ২১টি শট নেয় পিএসজি, যার মধ্যে ৮টি ছিল লক্ষ্যে। অন্যদিকে রিয়াল মাত্র ৩ শটের একটিও লক্ষ্যে রাখতে পারেনি। ম্যাচের শুরু থেকেই রিয়ালকে কোণঠাসা করে রাখে পিএসজি। ১৮তম মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার ভালো সুযোগ পেয়েছিল স্বাগতিকরা। রিয়াল রক্ষণ ভেদ করে কিলিয়ান এমবাপের নেওয়া বাঁ পায়ের শট কোনোমতে বাইরে বের করে দেন থিবো কর্তোয়া। প্রথমার্ধে এমনভাবে বেশ কয়েকটি সুযোগ নস্যাৎ করেন রিয়াল গোলরক্ষক।
দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে এমবাপেকে আরও কয়েকবার হতাশ করেন কর্তোয়া। ৬০ মিনিটে কার্ভাহাল তো এমবাপেকে ফেলেই দেন ডি-বক্সে, পেনাল্টির বাঁশি বাঁচান রেফারি। কিন্তু অপ্রত্যাশিতভাবে মেসি সেই পেনাল্টি মিস করে বসেন। আর্জেন্টাইন খুদেরাজের গতিময় স্পট কিক ডানদিকে ঝাঁপিয়ে পড়ে আটকে দেন কর্তোয়া। ৭৩ মিনিটে অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়াকে তুলে নেইমারকে নামান পিএসজি কোচ মাওরিসিও পচেত্তিনো। এরপর আক্রমণের ধার আরও বাড়ায় স্বাগতিকরা। তবে মেসি-নেইমার-এমবাপের কোনো প্রচেষ্টাই কাজে আসছিল না। ম্যাচ তখন নির্ধারিত সময় শেষ করে এক্সট্রা টাইমও পার করার পথে। যোগ করা সময়ের চতুর্থ মিনিটে অবশেষে ‌‘ডেডলক’ ভাঙেন এমবাপে। নেইমারের ব্যাক হিল থেকে বল পেয়ে প্রতিপক্ষের দুই ডিফেন্ডারকে কাটিয়ে শট নেন ফরাসি তারকা। এবার আর দলকে বাঁচাতে পারেননি কর্তোয়া। তার দুই পায়ের মাঝখান দিয়ে বল জড়িয়ে যায় জালে। তাতে ১-০ গোলের ঘাম ঝরানো এক জয় নিয়ে প্রথম লেগ শেষ করেছে পিএসজি।

Lab Scan