মাদকাসক্ত ছেলের হাতে গুরুতর জখম মা

0

স্টাফ রিপোর্টার॥ যশোর শহরে মাদকাসক্ত ছেলে পলাশ চৌধুরীর অস্ত্রের আঘাতে মা রিক্তা চৌধুরী (৬০) গুরুতর জখম হয়েছেন। ছেলের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে তার গলায়, বুকে, হাতে ও মাথায় গভীর ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে।  সোমবার রাত সাড়ে ৭ টার দিকে শহরের বেজপাড়া বনানী রোড প্রগতি পল্লীতে এ ঘটনা ঘটে। রিক্তা চৌধুরী ওই এলাকার শক্তিপদ চৌধুরীর স্ত্রী। আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে যশোর ২৫০ শয্যা হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়া হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসাপাতালে পাঠিয়েছেন।
স্থানীয় বাসিন্দা শেখ ”ঞ্চল জানান, সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর অ্যাড.আসাদুজ্জামান বাবুলসহ কোতয়ালি থানা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সাথে তারা এলাকার আইন শৃঙ্খলা বিষয় নিয়ে সভা করছিলেন। এসময় মারামারির খবর পেয়ে পুলিশ ও পৌর কাউন্সিলর সকলেই ঘটনাস্থলে যান। এসময় তারা ঘরের মধ্যে গিয়ে দেখতে পান রিক্তা চৌধূরী রক্তাক্ত অবস্থায় মেঝেতে পড়ে আছেন। পাশে রক্ত মাখা তরকারি কাটা বটি রয়েছে। ঘরে মধ্যে মদসহ বিভিন্ন নেশা জাতীয় দ্রব্যের বোতল পড়ে আছে। পরে পুলিশ সদস্যরা তাকে হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন। অভিযুক্ত পলাশ চৌধুরীর শ্যালক বকচর এলাকার শিমুল রায় বলেন, তার ভগ্নিপতি নেশাগ্রস্ত প্রায় সময় সে তার মাকে নির্যাতন করে। এছাড়া বিভিন্ন সময় সে আমার বোনকেও নির্যাতন করে। আমি মারামারি সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে এসেছি।
স্থানীয় পৌর কাউন্সিলর অ্যাড.আসাদুজ্জামান বাবুল বলেন, প্রথমে মারামারি সংবাদ পেয়ে উপস্থিত পুলিশ সদস্যসহ সকলেই ঘটনাস্থলে যায়। পরে গিয়ে শুনি মাদকাসক্ত ছেলে হাতে মা জখম হয়েছেন। আহত রিক্তা চৌধুরী বেজাপাড়া বনানী রোডের প্রগতি পল্লীর ভাড়াটিয়া। তাদের বাড়ি কোথায় সেটি আমার জানা নেই।
এদিকে অভিযুক্ত ছেলে পলাশ চৌধুরী রাতেই হাসপাতাল চত্বর থেকে কোতয়ালি থানা পুলিশ আটক করে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন, থানার ইন্সপেক্টর( তদন্ত) সফিকুল আলম চৌধুরী।

Lab Scan