মাগুরায় সড়কির কোপে মাদরাসাছাত্র নিহত

0

 

মহম্মদপুর (মাগুরা) সংবাদদাতা ॥ মহম্মদপুর উপজেলার পলাশবাড়ীয়া ইউনিয়নের চরঝামা গ্রামে প্রতিপক্ষের সড়কির কোপে হাসিবুল ইসলাম (১৫) নামের এক মাদরাসা ছাত্র নিহত হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যার সময় এ ঘটনা ঘটে। নিহত হাসিবুল ওই গ্রামের মৃত সায়েখ মুন্সীর ছেলে এবং পাশ্ববর্তী ঝামা বরকাতুল উলুম মাদরাসার নবম শ্রেণির ছাত্র। ঘটনার পরে রাত পর্যন্ত দফায় দফায় ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া চলতে থাকে। এ সময় বেশকছিু বাড়িঘর ভাংচুর হয় এবং কয়েকজন আহত হয়।

এ ঘটনার পর থেকে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। গোটা গ্রামে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। তবে রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলা হয়নি এবং পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

হাসিবুলের বড় ভাই আমানত মুন্সী জানান, ঘটনার দিন বিকেলে উপজেলার চরঝামা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে স্থানীয় তরুণরা ফুটবল খেলছিলো। একপাশে বসে হাসিবুল খেলা দেখছিলো। খেলা শেষের দিকে স্থানীয় ইউসুফ মোল্যার ছেলে সুমনের সাথে হাসিবের কথা কাটাকাটি হয়। এ খবর পেয়ে ইউসুবের নেতৃত্বে তার সমর্থকরা হাসিবকে পাকড়াও করে। এরপর হাসিবের বুকে সড়কি দিয়ে কুপিয়ে তারা পালিয়ে যায়।

মারাত্মক আহত হাসিব চিৎকার করতে করতে পাশ্ববর্তী ইমরুল মোল্যার বাড়ির উঠোনে গিয়ে পড়ে যায়। ইমরুলের স্ত্রী বিথি জানান, তখন হাবিসের রক্তে উঠোন ভেসে যাচ্ছিলো এবং সে ছটফট করছিলো। সেখান থেকে মুমূর্ষু অবস্থায তাকে ভ্যানযোগে ফরিদপুরের বোয়ালমারী হাসপাতালে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে নিহত হাসিব পক্ষের সমর্থকরা প্রতিপক্ষের বেশ কয়েকটি বাড়িঘরে হামলা ও ভায়চুর করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

ঘটনার রাতে ঘটনাস্থলে থাকা মাগুরার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম ও অপারেশন) কলিমুল্লাহ্্ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘অনভিপ্রেত ঘটনাটি দু:খজনক ও মর্মান্তিক। ঘাতকদের গ্রেফতারের জন্য পুলিশ তৎপর। নতুন করে বিশৃঙ্খলা এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে।’ মহম্মদপুর থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) মো. আশরাফুল আলম বলেন, হাসিবুল ইসলাম নিহতের ঘটনায় এখনও থানায় মামলা হয়নি।

 

Lab Scan