মহেশপুরে বয়স্ক ভাতার টাকা আসে ইউপি সদস্যের ছেলের নম্বরে

0

মহেশপুর(ঝিনাইদহ)সংবাদদাতা॥ শারীরিক অসুস্থ আলী আহম্মদ আশায় আছেন বয়স্ক ভাতার টাকা পেলে ওষুধ কিনবেন। কিন্তু দেড় বছর পার হয়ে গেলেও তার নম্বরে বয়স্ক ভাতার কোন টাকা আসেনি। কারণ জানতে একাধিকবার ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউপি সদস্যের কাছে গিয়ে কোন লাভ হয়নি।
পরে জানতে পারেন তার বয়স্ক ভাতার টাকা প্রতারণার মাধ্যমে আত্মসাৎ করছেন ইউপি সদস্য আজিজুর রহমান। ঘটনাটি ঘটেছে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়ীয়া ইউনিয়নের ৫নম্বর ওয়ার্ডের গাড়াপোতা গ্রামে।
অভিযোগে জানা য়ায়, ভাতার কার্ডে আলী আহম্মদের নাম থাকলেও কৌশলে আলী আহম্মদের নম্বরের জায়গায় নিজের ছেলের নম্বর দিয়েছেন ওই ইউপি সদস্য। যে কারণে কার্ড প্রাপ্তির দেড় বছরের সব টাকা এসেছে ছেলের নগদ নম্বরে। এদিকে নিজের নম্বরে কোন টাকা না আসায় মহেশপুর সমাজসেবা অফিসে গিয়ে তিনি জানতে পারেন তার নম্বরের জায়গায় ইউপি সদস্যের ছেলে আসাদুজ্জামানের নম্বর দেয়া হয়েছে। এছাড়া ইউপি সদস্য আজিজুর রহমানের বিরুদ্ধে আরো অনেক কার্ডে ভুক্তভোগীর নম্বরের জায়গায় নিজের পরিবারের সদস্যদের নম্বর দেয়ার অভিযোগ রয়েছে।
টাকা আত্মসাতের বিচার চেয়ে মহেশপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে লিখিত অভিযোগ করেছেন ভুক্তোভোগী আলী আহম্মদের ছেলে জাকির হোসেন।
আলী আহম্মদ বলেন, আজিজুর রহমান ইউপি সদস্য নির্বাচিত হবার পর পরই আমার কাছ থেকে ভোটার আইডি কার্ড চেয়ে নিয়ে আমাকে বয়স্ক ভাতার কার্ড করে দেন। পরবর্তীতে সবার মোবাইলে টাকা আসলেও আমার মোবাইলে কোন টাকা আসেনি। কারণ জানতে একাধিকবার ইউনিয়ন পরিষদ ও ইউপি সদস্যের কাছে গিয়েও কোন লাভ হয়নি। যে কারণে স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্যকে নিয়ে উপজেলা সমাজসেবা অফিসে গিয়ে দেখতে পাই আমার নম্বরের জায়গায় ইউপি সদস্যের ছেলে নম্বর রয়েছে।
বিষয়টি জানাজানি হলে ইউপি সদ্যস্যের ছেলে নম্বর পরিবর্তন করে আমার নম্বর দিয়েছেন। তবে নম্বর পরিবর্তন করলেও দেড় বছরে আমি কোন টাকা পাইনি।
ইউপি সদস্য আজিজুর রহমান জানান, যে কোন কারণবসত আলী আহম্মদের মোবাইল নম্বরের জায়গায় আমার ছেলে নম্বর হয়ে গিয়েছিলো। পরবর্তীতে মীমাংসার মাধ্যমে ভুক্তভোগীকে টাকা ফেরত দেয়া হয়েছে।
উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান জানান, যাতেকরে কার্ডধারী তার প্রাপ্ত বয়স্ক ভাতার টাকা ফিরে পেতে পারেন সে ব্যাপারে ইউপি সদস্যকে বলা হবে। তা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

Lab Scan