মহম্মদপুরে দুই সহোদরের গলা কাটা লাশ উদ্ধার

0

মহম্মদপুর (মাগুরা) সংবাদদাতা॥ মাগুরার মহম্মদপুর উপজেলার নহাটা ইউনিয়নের পানিঘাটা গ্রামের ইছামতী বিলের ঢোক চান এলাকার একটি মাঠ থেকে সবুজ মেল্যা (৩০) ও হৃদয় (১৮) নামের আপন দুই সহোদরের গলা কাটা লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। রোববার সকালে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়। নিহত সবুজ ও হৃদয় পানিঘাটা এলাকার মঞ্জুর মোল্লার ছেলে। এ সময় ঘটনাস্থল থেকে ঘটনার সাথে জড়িত সন্দেহে মেহেদী হাসান বিপ্লব ও আসিফ শিকদার নামে দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আটক করেছে থানা পুলিশ। আটকরা পানিঘাটা গ্রামের ফারুক শিকদারের ছেলে। খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মো. মশিউদ্দোলা রেজা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. তোফাজ্জল হোসেন, সহকারী পুলিশ সুপার মো. মোস্তাফিজুর রহমান ও মহম্মদপুর থানার ওসি মো. বোরহান উল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, ঘটনার দিন সকালে স্থানীয় শ্রমিকরা নহাটা ইউনিয়নের ইছামতী বিলের ঢোক চান এলাকার মাঠে কাজ করতে গিয়ে দুটি লাশ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ দুটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মাগুরা সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়ে দেয়। পুলিশ প্রাথমিকভাবে ধারনা করছে, প্রতিবেশীদের সাথে জমিজমার বিরোধের জেরে এই ঘটনা ঘটেছে। নিহতের পরিবার জানায়, শনিবার রাত সাড়ে ৮ টার দিকে ফারুক শিকদারের ছেলে আশিক, বিপ্লব ও হাসিব শিকদার দুই ভাইকে খুঁজতে ওই বাড়িতে আসে। রাতের দু ভাই আর বাড়িতে ফিরে আসেন নি। পরের দিন সকালে মাঠের মধ্যে দুই ভাইয়ের গলাকাটা লাশ পাওয়া গেছে বলে আমরা জানতে পারি। এটি একটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড। ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত করে হত্যার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে ন্যায় বিচারের দাবি জানান তারা।

মহম্মদপুর থানার অফিসার ইনচার্জ মো. বোরহান উল ইসলাম বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্যে মাগুরা সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। স্থানীয় দুজনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্যে আটক করা হয়েছে। বাকিদেরকে আটকের চেষ্টা চলছে। প্রতিবেশীদের সাথে জমিজমার বিরোধের জেরে এই ঘটনা ঘটতে পারে।

 

Lab Scan