মহম্মদপুরের বড়রিয়ায় ঐতিহ্যবাহী ঘোড়দৌড় ও পৌষমেলা অনুষ্ঠিত

মাগুরা সংবাদদাতা ॥ নানা আয়োজনে রবিবার বিকালে দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের বড় মহম্মদপুরের ঐতিহ্যবাহী বড়রিয়া ঘোড়দৌড় ও পৌষমেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রায় ১২০ বছর ধরে বাংলা পৌষ মাসের ২৮ ও ২৯ তারিখে অনুষ্ঠিত হয়ে আসছে এ মেলা। মেলা উপলক্ষে নবসাজে সজ্জিত হয় বড়রিয়াসহ আশপাশের অন্তত ৫০ টি গ্রাম। এ উপলে এলাকার প্রতি বাড়িতে চলে নানা আয়োজন। মেলার প্রধান আকর্ষণ ঘোড়দৌড় দেখার জন্য সকাল থেকে মেলামুখী মানুষের ঢল নামে। প্রতিবছর ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা ও উৎসবমুখর পরিবেশের মধ্য দিয়ে কয়েক লাখ মানুষের সমাগম ঘটে এ মেলায়।
এ মেলার মূল আকর্ষণ ঘোড়দৌড় প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয় বিকাল ৩ টায়। বিভিন্ন জেলা থেকে আসা ২৮টি ঘোড়া এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। এবারের প্রতিযোগিতায় মাগুরার মাইজপাড়ার সোবহান সরদারের ঘোড়া প্রথম, পারলা শিরগ্রামের কুদ্দুসের ঘোড়া দ্বিতীয় ও নাওভাঙ্গার কাজী হাবিবের ঘোড়া তৃতীয় স্থান অর্জন করে। ঘৌড়দৌড় শেষে মেলা কমিটির সভাপতি ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান খাঁন জাহাঙ্গীর আলম বাচ্চু অন্যান্য অতিথিদের উপস্থিতিতে বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করেন। মেলাকে কেন্দ্র করে উপজেলার বালিদিয়া ইউনিয়নের বড়রিয়া গ্রামে প্রায় চার বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে বসে স্টল। চারু, কারু, কাঠ-বাঁশ,বেতের আসবাবপত্র, তৈজষপত্র, মিষ্টি মাছসহ রকমারি পণ্যের পসরা সাজিয়ে শত শত স্টল ও পুরোমেলা জুড়ে চলে ক্রেতা-বিক্রেতার মিলন মেলা। মাগুরাসহ আশপাশের বিভিন্ন জেলা থেকে কয়েক লাখ মানুষের সমাগত হয় এই মেলায়। মূল মেলা দুইদিন হলেও মেলার আগে ও পরে পকালব্যাপী চলে মেলার কেনাবেচা। মিষ্টি বিক্রেতা রমেশ চন্দ্র ঘোষ বলেন, প্রতিবছর তিনি মেলায় মিষ্টির স্টল দিয়ে থাকেন। এ মেলার বৈশিষ্ট যে, মেলায় যারা আসেন সবাই মিষ্টি কেনেন। তিনি এক হাজার মণ মিষ্টি বিক্রি করবেন বলে আশা করছেন।

ভাগ