মনিরামপুরে কেন্দ্রে না যেতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর পোলিং এজেন্টদের হুমকি

0

স্টাফ রিপোর্টার,মনিরামপুর(যশোর)॥ দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনে যশোর-৫ মনিরামপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী এস এম ইয়াকুব আলীর ঈগল প্রতীকের এজেন্টদের কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্যে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। ঈগল প্রতীকের প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট আওয়ামী লীগ নেতা জিএম মজিদ বাদী হয়ে রোববার রাতে প্রধান নির্বাচন কমিশনার, রিটার্নিং অফিসার, সহকারী রিটার্নিং অফিসার, পুলিশ সুপারসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত অভিযোগ করেছেন।
লিখিত অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, নির্বাচনের তারিখ যতই ঘনিয়ে আসছে ততই যশোর -৫ মনিরামপুরে স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা কৃষকলীগের সহসভাপতি এস এম ইয়াকুব আলীর ঈগল প্রতীকের পক্ষে গণজোয়ার সৃষ্টি হচ্ছে। ফলে নৌকা প্রতীকের কর্মী সমর্থকরা বেপরোয়া হয়ে উঠছে। কয়েকস্থানে নৌকা প্রতীকের সমর্থকরা ঈগল প্রতীকের কর্মী -সমর্থকদের ওপর হামলা ও মারধর করেছে। এছাড়া ঈগলের একটি নির্বাচনী অফিসে হামলা চালিয়ে ভাঙচুর করেছে।
ইতোমধ্যে ঈগলের পক্ষে সব কেন্দ্রের পোলিং এজেন্ট নির্ধারণ করা হয়েছে। প্রধান নির্বাচনী এজেন্ট সাবেক ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান জিএম মজিদ অভিযোগ করেন, নৌকা প্রতীকের পক্ষে খেদাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল আলিম জিন্নাহর নেতৃত্বে হাবিবুর রহমান, জাহাঙ্গীর হোসেন, রামনগরের মহিদুল ইসলাম, শৈবাল হোসেন, চাকলা এলাকার শরিফুল ইসলাম, ঝাঁপা এলাকার সিরাজুল ইসলাম, কবির হোসেনসহ অন্যান্য চিহ্নিত সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা প্রতিনিয়ত ঈগলের এজেন্টদের বাড়িতে গিয়ে কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্যে হুমকি দিচ্ছে। ফলে এলাকায় আতংক বিরাজ করছে। যে কারণে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্পন্ন না হওয়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী পরিচালনা কমিটির এক নম্বর সদস্য খেদাপাড়া ইউপি চেয়ারম্যান আবদুল আলিম জিন্নাহ কোনো ধরনের হুমকি প্রদর্শনের অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচনের জন্যে সব সময় কাজ করে চলেছি। নৌকা প্রতীকের নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পৌর মেয়র অধ্যক্ষ কাজী মাহমুদুল হাসান জানান, এসব অভিযোগের কোনো ভিত্তি নেই। তবে সহকারী রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাকির হোসেন অভিযোগ প্রাপ্তির সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নেওয়া শুরু হয়েছে।

Lab Scan