মণিরামপুরে ১০ দিনে তিন শতাধিক ডায়রিয়ায় আক্রান্ত, অধিকাংশ শিশু

0

মজনুর রহমান,মনিরামপুর (যশোর) ॥ মনিরামপুর উপজেলায় গত ১০ দিনে তিন শতাধিক ব্যক্তি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। আক্রান্তদের আধিকাংশই শিশু। শনিবার পর্যন্ত দেড় শতাধিক রোগী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিয়েছেন। হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন ৫৬ জন।
চিকিৎসকরা বলছেন, বর্তমান আবহাওয়ায় দিনে গরম আর রাতে ঠান্ডার কারণে ডায়রিয়ায় আক্রান্তদের সংখ্যা বাড়ছে। গত ১০ দিনের ব্যবধানে উপজেলার বিভিন্ন প্রান্তে তিন শতাধিক ব্যক্তি ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের বহির্বিভাগ থেকে দেড় শতাধিক ব্যক্তি চিকিৎসা নিয়েছেন। বাকিরা বিভিন্ন ক্লিনিক ও অন্য কোনো হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা নিয়েছেন। সাধারণ ওয়ার্ডের পাশাপাশি মহিলা ও শিশুদের চিকিৎসার জন্য স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের দোতলায় মহিলা ওয়ার্ডের দক্ষিণ পাশে ১০টি শয্যা প্রস্তুত করা হয়েছে। তবে আক্রান্তদের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাওয়ায় মেঝেতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, দক্ষিণ পাশের ওয়ার্ডে শয্যার অভাবে মহিলা ও শিশু রোগীদের মেঝেতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
বাকোশপোল গ্রামের শান্তা ইসলাম বলেন, তিনি ও তার তিনমাস বয়সী মেয়ে নুসরত ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে তিনদিন আগে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এখন একটু সুস্থতার দিকে। বাহিরঘরিয়া গ্রামের শাহাবুদ্দিনের আট মাস বয়সী মেয়ে মালিহাকে ভর্তি করা হয়েছে শনিবার সকালে। কিন্তু শয্যা না থাকয় তাকে মেঝেতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।
দায়িত্বরত সিনিয়র স্টাফ নার্স শাহিদা বেগম ও মিডওয়াইফারি সুপ্রিয়া জানান, প্রয়োজনীয় সংখ্যক শয্যার অভাবে মেঝেতে রেখে রোগীদের চিকিৎসা চলছে।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তন্ময় বিশ্বাস জানান, হঠাৎ করে আবহাওয়া পরিবর্তনের কারণে ডায়রিয়ায় আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

Lab Scan