মণিরামপুরে বিধবা জাহানারা হত্যা মামলায় আটক লাল্টুর আদালতে স্বীকারোক্তি

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ যশোরের মণিরামপুরে বিধবা জাহানারা বেগম হত্যা মামলায় আটক মোয়াজ্জেম হোসেন লাল্টু আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। তারা তিনজন মিলে জাহানারাকে ধর্ষণ শেষে হত্যার কথা স্বীকার করেছেন। শনিবার জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মাহাদী হাসান আসামির এ জবানবন্দি গ্রহণ শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন। আসামি মোয়াজ্জেম হোসেন লাল্টু শমসকাঠি গ্রামের মৃত শাহাজান শেখের ছেলে ।
মোয়াজ্জেম হোসেন লাল্টু জবানবন্দিতে জানিয়েছেন, জয়গনর গ্রামের জাহানারা বেগমের বাড়ি। গ্রাম আলাদা হলেও পাশাপাশি বাড়ি হওয়ায় তিনি তার পূর্ব পরিচিত। ঘটনার রাতে তারা তিনজন পরিকল্পনা করেন জাহানারার সাথে শারীরিক সম্পর্ক করবে। সেই অনুযায়ী লাল্টু তাকে ফোন করে মাঠে আসতে বলেছিলেন। এরপর তারা তিনজন পর্যায়ক্রমে ধর্ষণ করে ফেলে রেখে পালিয়ে যান। পরে জাহানারা মারা গেছেন বলে জানতে পারেন লাল্টু। মামলার অভিযোগে জানা গেছে, গত বুধবার সকালে শ্যামকুড় ইউনিয়নের জামলা রোডের আব্দুল লতিফের ধান ক্ষেত থেকে জাহানারা বেগমের লাশ উদ্ধার করা হয়। জাহানারা বেগম জয়নগর গ্রামের মৃত লুৎফর বাবুর্চির স্ত্রী। এ মামলায় তদন্তকালে যশোরের পিবিআই হত্যার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে লাল্টুকে আটক ও শনিবার আদালতে সোপর্দ করেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। লাল্টু গণধর্ষণ ও হত্যার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করে আদালতে ওই জবানবন্দি দিয়েছে।

Lab Scan