ভোটারদের ‘ঘুমে’ ইসির নতুন সিদ্ধান্ত, কিন্তু কোরমাও-পোলাওয়ের কী হবে?

লোকসমাজ ডেস্ক ॥ কেন ভোটাররা কেন্দ্রে আসছেন না? গত কয়েক বছরে বাংলাদেশে এটাই প্রধান আলোচনার বিষয়। কারণ সবার জানা হলেও অনেক সময় স্পষ্ট করে বলা হয় না। ঢাকার সিটি নির্বাচনের দিন সকালে এক কর্মকর্তা বলেছিলেন, ইয়াং জেনারেশন একটু দেরিতে ঘুম থেকে ওঠে। ভোটারদের এই ঘুম ভাবিয়ে তুলেছে নির্বাচন কমিশনকে। এ কারণেই আসন্ন চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও সংসদের দুটি আসনের উপনির্বাচনে এক ঘণ্টা পরে ভোট শুরুর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন। সকাল ৮টায় ভোটকেন্দ্রে ভোটার উপস্থিতি কম হওয়া এই সিদ্ধান্ত নেয়ার কারণ দেখিয়েছেন নির্বাচন কমিশন সচিব মো. আলমগীর। ভোট ৮টা থেকে ৪টার পরিবর্তে সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৫টা পর্যন্ত কেন- এমন এক প্রশ্নে জ্যেষ্ঠ সচিব আলমগীর বলেন, ৮টায় ঘুম থেকে উঠে না। সকালে ভোট হলে ভোটার উপস্থিতি কম দেখি। বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়ে। এজন্য কমিশন এটা ৮টা থেকে ৯টা করেছে।
ভোটারদের উদ্দেশে আলমগীর বলেন, সম্পূর্ণ শান্তিপূর্ণ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু ভোট করার জন্য যা যা দরকার কমিশন তা করবে। সকল ভোটারকে বলব নির্ভয়ে, নিশ্চিন্তে আপনার যে অধিকার রয়েছে, তা প্রয়োগ করবেন। ঢাকা সিটি নির্বাচনের দিন আরও বেশ কিছু তত্ত্ব উচ্চারিত হয়েছিল। এক মন্ত্রী বলেছিলেন, যারা ভোট দিতে আসেনি তারা বাসায় কোরমা-পোলাও খাচ্ছেন। এখন ঘুমের না হয় একটি সমাধান হলো, কিন্তু যারা কোরমাও-পোলাও খাবেন, তাদের কীভাবে কেন্দ্রে আনা যাবে।আর চট্টগ্রামে কোরমা-পোলাও খুব জনপ্রিয় সেকথাতো সবারই জানা।

ভাগ