ভৈরব নদ সংস্কারে অনিয়ম ও দুর্র্নীতির দ্রুত তদন্ত দাবি

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভৈরব নদ সংস্কারে দুর্নীতি, অনিয়ম, স্বেচ্ছাচারিতার সঠিক তদন্তের দাবি জানিয়েছেন ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলনের নেতৃবৃন্দ। ভৈরবের সর্বশেষ পরিস্থিতি নিয়ে সোমবার প্রেসক্লাব যশোর মিলনায়তনে এক প্রতিনিধি সভায় নেতৃবৃন্দ এ দাবি জানান।
সভায় বক্তারা বলেন- যশোরবাসী দীর্ঘ আন্দোলন, সংগ্রাম, ঘেরাও, অবরোধ, হামলা, মামলা, কারাবাসের ভেতর দিয়ে বহুল প্রত্যাশিত এ নদ খননে দাবি আদায় করা হয়েছে। খনন কাজ সম্পন্ন হলেও শেষে দেখা গেলো যে আকাঙ্খা নিয়ে এ খনন কাজ করা হয় তার কোনো সুফল মেলেনি। বরং খননের নামে-নদটিকে খালে রুপান্তরিত করা হয়েছে। অভিযোগ রয়েছে খননের নামে দুর্নীতি-অনিয়মের মাধ্যমে কোটি কোটি টাকা লুটপাট করা হয়েছে। নেতৃবৃন্দ এসব অনিয়ম- দুর্নীতির অবিলম্বে তদন্ত করার দাবি জানান। একই সাথে এই মুহূর্তেই উজানে মাথাভাঙ্গার সাথে ভৈরবের সংযোগ প্রদান করে দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের নদীসমূহের প্রাণ ফিরিয়ে দিতে উদ্যোগ নিতে দাবি জানান নেতৃবৃন্দ ।
প্রতিনিধি সভায় সভাপতিত্ব করেন- ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলন সমন্বয় কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক আফসার আলী। বক্তব্য দেন- ভৈরব নদ সংস্কার আন্দোলন সমন্বয় কমিটির অন্যতম উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ, মোবাশ্বের হোসেন বাবু, অ্যাড আবুল হোসেন, জিল্লুর রহমান ভিটু, শেখ মাসুদুজ্জামান মিঠু, অ্যাড. আবুল কায়েস, আতিয়ার রহমান প্রমুখ। প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত ছিলেন- মাস্টার নূর জালাল, নাজিম উদ্দিন, অ্যাড. শহীদ আনোয়ার, হারুন-অর-রশীদ, সাইফুজ্জামান মজু, পলাশ বিশ্বাস, আসাদুজ্জামান পিল্টু প্রমুখ। সভা পরিচালনা করেন তসলিম-উর-রহমান।
সভাশেষে সর্বসম্মতিক্রমে কিছু সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এরমধ্যে রয়েছে উজানে মাথাভাঙ্গার সাথে ভৈরবের সংযোগ প্রদান, সংস্কার কাজের দুর্নীতির অনিয়মের বিচার, ভৈরবের ওপর নির্মিত ৫১টি ব্রিজ বিআইডব্লিউটিএ’র নীতিমালা মেনে পুনর্নির্মাণ, রাজারহাট, দায়তলা ও ছাতিয়ানতলায় ভৈরব নদের ওপরে নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন নিচু ব্রিজ ৩টির কাজ এই মুহূর্তেই স্থগিত করা ও ভৈরব নদকে নৌ-চলাচলের উপযোগী করার দাবিতে গণসংযোগ, সভা-সমাবেশ ও মতবিনিময়ের আয়োজন করা।
সভা থেকে আগামী ২১ আগস্ট সকাল ১১টায় এসব দাবিতে জেলা প্রশাসকের কাছে স্মারকলিপি প্রদানে সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

Lab Scan