ভারতকে গুঁড়িয়ে দিল নিউজিল্যান্ড

নিজেদের ঘরের মাঠে নিউজিল্যান্ড ৫ ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজটা হেরেছে ৪-১ ব্যবধানে। সেই হারের প্রতিশোধ নেশা থেকেই কিনা প্রথম টি-টোয়েন্টিতে ভারতকে রীতিমতো গুঁড়িয়ে দিয়েছে কিউইরা। জিতেছে ৮০ রানের বিশাল ববধানে। ওয়েলিংটনে তিন ম্যাচের সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে টস জিতে প্রথমে ফিল্ডিং নেন ভারতের অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তার এই সিদ্ধান্তকে বুমেরাং প্রমাণ করে নিউজিল্যান্ড মাত্র ৬ উইকেট হারিয়ে গড়ে ২১৯ রানের বিশাল পুঁজি। ভারতের বিপে টি-টোয়েন্টিতে এটাই নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহ। সব মিলে টি-টোয়েন্টিতে এটি তাদের তৃতীয় সর্বোচ্চ পুঁজি। ২২০ রানের ল্য তাড়া করতে নেমে সফরকারী ভারত ৪ বল বাকি থাকতেই ১৩৯ রানে অলআউট।
কিউইদের বিশাল সংগ্রহের মূল নায়ক টিম সেইফার্ত। ডানহাতি এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান ওপেনিংয়ে নেমে খেলেছেন ৪৩ বলে ৮৪ রানের ঝড়ো ইনিংস। ৬টি ছক্কা ও টি চারের সহায়তায় ইনিংসটি সাজিয়েছেন তিনি। সেইফার্তকে অনুসরণ করে ব্যাট ছোটখাট ঝড় তোলেন কলিন মুনরো, অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন, রস টেলর, কেগলেয়নরাও। সেইফার্ত-মুনিরো মিলে ওপেনিং জুটিতেই তুলে ফেলেন ৮৬ রান। সেটিও মাত্র ৮.২ ওভারে। শক্ত এই ভিতের উপর দাঁড়িয়ে অন্যরাও ব্যাট চালিয়েছেন সপাটে। সমান দুটি করে ছক্কা-চারে মুনরো ২০ বলে করেন ৩৪ রান। উইলিয়ামসন ৩ ছক্কায় ২২ বলে ৩৪। দুই ছ্ক্কায় টেলর ১৪ বলে করেন ২৩। শেষ দিকে কেগলেয়ন মাত্র ৭ বলে করেন অপরাজিত ২০ রান। প্রায় অসম্ভব ল্য তাড়ায় ভারত শুরুতেই হারিয়ে বসে অধিনায়ক রোহিতকে। মাত্র ১ রান করে ফিরেন তিনি। সেখান থেকে এক পর্যায়ে ৭৭ রানেই হারিয়ে ফেলে ৬ উইকেট। ভারতের বড় হার নিশ্চিত হয়ে যায় তখনই। এরপরও ভারত ১৩৯ পর্যন্ত যেতে পেরেছে মহেন্দ্র সিং ধোনির কল্যাণে। ভারতের পে সর্বোচ্চ ৩৯ রান করেছেন ধোনি। এছাড়া ওপেনার শেখর ধাওয়ান ১৮ বলে ২৯, বিজয় শঙ্কর ১৮ বলে ২৭ ও ক্রুনাল পান্ডিয়া ঠিক ১৮ বলে ২০ রান করেন। বাকিদের কেউিই দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি। ব্যাট হাতে ঝড়ো ইনিংস খেলার সুবাদে ম্যাচসেরার পুরস্কারটি পেয়েছেন সেইফার্ত। বিশাল এই জয়ে সিরিজে ১-০তে এগিয়ে গেল স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। সিরজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টি শুক্রবার, অকল্যান্ডে।

ভাগ