ভবদহের জলাবদ্ধতা দূরীকরণসহ ছয় দফা দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি

0

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ভবদহ ও তৎসংলগ্ন বিল এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণসহ ছয় দফা দাবিতে যশোর কালেক্টরেট ভবনের (ডিসি অফিস) সামনে অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন জেলার জলমগ্ন এলাকার বাসিন্দারা। রোববার দুপুর ১২টা থেকে ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির ডাকে ব্যানার-ফেস্টুন, লাঙল, মই ও আঁচড়াসহ কর্মসূচি শুরু করেন তারা। এ সময় ভবদহবাসী ‘পানি সরাও, মানুষ বাঁচাও’ শ্লোগানে দিতে থাকেন। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত চলবে বলে জানিয়েছেন সংগঠনটির প্রধান উপদেষ্টা ইকবাল কবির জাহিদ।
৬ দফা দাবি হলো-সরকারকে মিথ্যা তথ্য প্রদান, নদী হত্যা, জনপদের অবর্ণনীয় দুঃখ-দুর্দশা, ফসল-বসতবাড়ি-জানমালের ক্ষয়ক্ষতির সঙ্গে জড়িত পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ, প্রস্তাবিত প্রায় ৪৫ কোটি টাকার ‘ভবদহ ও তৎসংলগ্ন বিল এলাকার জলাবদ্ধতা দূরীকরণ’ অবিবেচনাপ্রসূত প্রকল্প বাতিল, ক্রাশ প্রোগ্রামের মাধ্যমে মাঘী পূর্ণিমার আগেই বিল কপালিয়ায় টিআরএম (জোয়ারাধার) চালু, আমডাঙ্গা খাল সংস্কার প্রকল্প দ্রুত বাস্তবায়ন ও কাজের স্বচ্ছতা আনতে আন্দোলনকারী সংগঠনগুলোর নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সেনাবাহিনীর তদারকিতে সম্পন্ন করা, ভবদহ স্লুইস গেটের ভাটিতে পাইলট চ্যানেল করতে ৫-৬টি স্কেভেটর লাগানো, ২১, ৯ ও ৮ ভেন্টের গেটসমূহ উঠানামা করানোর ব্যবস্থা এবং জনপদের মানুষের ক্ষয়ক্ষতির জন্যে ক্ষতিপূরণ, কৃষিঋণ মওকুফ ও খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করা।
অবস্থান কর্মসূচি চলাকালে নেতৃবৃন্দ বলেন, পাম্প দিয়ে পানি সরানো যাবে না। এই সমস্যা সমাধানে এই মুহূর্তে বিল কপালিয়ায় টিআরএম চালুর কোনও বিকল্প নেই। ইতোমধ্যে পাউবো প্রায় ৪৫ কোটি টাকার একটি প্রকল্প নিয়েছে। সেখানে প্রায় ১৮ কোটি টাকার স্কেভেটরের কাজ বাদে অন্য টাকা লুটপাট হয়ে যাবে।
কৃষক নেতারা বলেন, পাউবো বলেছিল, ডিসেম্বরে আপনারা রোপা চাষ করতে পারবেন। কিন্তু এখনও ভবদহ এলাকার লাখ লাখ একর জমি পানির নিচে, হাজার হাজার ঘরবাড়ি জলমগ্ন, ৪০-৫০টি স্কুল-কলেজে পানি। এমনকি ইউপি নির্বাচনের সময়ও অনেক স্কুলে হাঁটুপানি থাকায় সেখানে ভোটকেন্দ্র্র করা যায়নি। এমন পরিস্থিতিতে লাগাতার অবস্থান কর্মসূচি নিতে বাধ্য হয়েছেন জানিয়ে তারা বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত জলমগ্ন ভবদহবাসীর পক্ষে ফলাফল না আসবে, ততক্ষণ এখানে অবস্থান করবো। এতেও যদি কিছু না হয়, তবে আমরা ঢাকায় ডিজি অফিসে লাগাতার ধরনা দেবো।
কর্মসূচিতে আরও বক্তব্য রাখেন, জেলা কমিউনিস্ট পার্টির সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল হোসেন, জেলা ওয়ার্কার্স পার্টির (মার্কসবাদী) সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান ভিটু, বিথীকা বিশ্বাস, গাজী আব্দুল হামিদ, ভবদহ পানি নিষ্কাশন সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক রণজিৎ বাওয়ালী, সদস্য সচিব অধ্যাপক চৈতন্য পাল প্রমুখ।

 

Lab Scan