বিনিয়োগকারীদের পছন্দের শীর্ষে বিডিকম

0

লোকসমাজ ডেস্ক॥ দেশের প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) থেকে সতর্ক বার্তা প্রকাশ করা হলেও বিডিকম অনলাইনের শেয়ার দাম বাড়ার ধারা অব্যাহত রয়েছে। আগের সপ্তাহের মতো গেল সপ্তাহেও দাম বাড়ার ক্ষেত্রে দাপট দেখিয়েছে এই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ার। গত সপ্তাহে বিনিয়োগকারীদের কাছে পছন্দের শীর্ষে ছিল কোম্পানিটির শেয়ার। ফলে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে দাম বাড়ার শীর্ষ স্থান দখল করেছে এই প্রতিষ্ঠানটি।
গেল সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ৩১ দশমিক ২০ শতাংশ। টাকার অঙ্কে বেড়েছে ১০ টাকা ৭০ পয়সা। সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস শেষে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম দাঁড়িয়েছে ৪৫ টাকা, যা আগের সপ্তাহের শেষ কার্যদিবসে ছিল ৩৪ টাকা ৩০ পয়সা।
গেল সপ্তাহের আগের সপ্তাহে কোম্পানিাটির শেয়ারের দাম বাড়ে ৪১ দশমিক ৭৪ শতাংশ। টাকার অঙ্কে বাড়ে ১০ টাকা ১০ পয়সা। এতে মাত্র দুই সপ্তাহে কোম্পানিটির শেয়ারের দাম ২৪ টাকা ২০ পয়সা থেকে বেড়ে ৪৫ টাকা হয়েছে।
প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারের এই দাম বৃদ্ধিকে অস্বাভাবিক বলছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ। আর কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, এই অস্বাভাবিক দাম বাড়ার পেছনে কোনো অপ্রকাশিত মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই।
কোম্পানিটির শেয়ারের অস্বাভাবিক দাম বাড়ার প্রেক্ষিতে গত ৯ মার্চ ডিএসইতে থেকে কোম্পানিটিকে নোটিশ পাঠানো হয়। এরপর কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ডিএসই বিনিয়োগকারীদের জানায়, বিডিকম অনলাইনের শেয়ারের দাম অস্বাভাবিক বাড়ার পেছনে কোনো মূল্য সংবেদনশীল তথ্য নেই বলে জানিয়েছে কোম্পানিটির কর্তৃপক্ষ। তবে ডিএসইর সতর্ক বার্তাও কোম্পানিটির শেয়ার দাম বৃদ্ধির ধারা রুখতে পারেনি।
শেয়ারের এমন দাম বাড়া কোম্পানিটি সর্বশেষ ২০২১ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত হিসাব বছরের জন্য বিনিয়োগকারীদের ৫ শতাংশ নগদ লভ্যাংশ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে ২০২০ সালে ৫ শতাংশ, ২০১৯ সালে ৬ শতাংশ, ২০১৮ সালে ৭ শতাংশ, ২০১৭ সালে ৫ শতাংশ এবং ২০১৬ সালে ৫ শতাংশ করে নগদ লভ্যাংশ দেয় কোম্পানিটি।
২০০২ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া এই কোম্পানিটির সর্বশেষ প্রকাশিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী, চলমান হিসাব বছরের প্রথমার্ধে (২০২১ সালের জুলাই থেকে ডিসেম্বর পর্যন্ত) শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয়েছে ৭৫ পয়সা। আগের হিসাব বছরের একই সময়ে শেয়ারপ্রতি মুনাফা হয় ৪৩ পয়সা।
এদিকে দাম বাড়ায় বিনিয়োগকারীদের একটি অংশ কোম্পানিটির শেয়ার বিক্রি করে দিয়েছেন। ফলে সপ্তাহজুড়ে কোম্পানিটির শেয়ার লেনদেন হয়েছে ১১৭ কোটি ৭৬ লাখ ৬১ হাজার টাকা। আর প্রতি কার্যদিবসে গড়ে লেনদেন হয়েছে ২৯ কোটি ৪৪ লাখ ১৫ হাজার টাকা
গেল সপ্তাহে দাম বাড়ার শীর্ষ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে সিলকো ফার্মাসিউটিক্যালস। এই প্রতিষ্ঠানটির শেয়ারের দাম সপ্তাহজুড়ে বেড়েছে ১৮ দশমিক ৯১ শতাংশ। এর পরের স্থানটিতে রয়েছে এনভয় টেক্সটাইল। সপ্তাহজুড়ে এ কোম্পানিটির শেয়ারের দাম বেড়েছে ১৮ দশমিক ৮১ শতাংশ।
এছাড়া দাম বাড়ার শীর্ষ ১০ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় থাকা সিএপিএম আইবিবিএল ইসলামীক মিউচ্যুয়াল ফান্ডের ১৬ দশমিক ৯০ শতাংশ, সুহৃদ ইন্ডাস্ট্রিজের ১৫ দশমিক ৩৮ শতাংশ, অ্যাডভেন্ট ফার্মার ১৫ দশমিক শূন্য ৬ শতাংশ, মোজাফফর হোসেন স্পিনিং মিলসের ১৪ দশমিক ৭২ শতাংশ, সাভার রিফ্র্যাক্টরিজের ১৪ দশমিক ৩৪ শতাংশ, ভিএফএস থ্রেড ডাইংয়ের ১৪ দশমিক শূন্য ৪ শতাংশ এবং সিলভা ফার্মাসিউটিক্যালসের ১৩ দশমিক ৪০ শতাংশ দাম বেড়েছে।

Lab Scan