বিজয়ের মাস

0

মাসুদ রানা বাবু ॥ আজ ৮ ডিসেম্বর। ১৯৭১ সালের এই দিনটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এবং ঘটনাবহুল। এদিন ভারতীয় মিত্রবাহিনী ও মুক্তিবাহিনীর লে. আইনউদ্দিন ও লে. দিদারুল আলমসহ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের তিনটি দল দুপুরেরর দিকে কুমিল্লা শহরের প্রবেশ করে। এরপর হানাদার বাহিনী কুমিল্লা শহর ছেড়ে পালিয়ে যায়। মুক্তিযোদ্ধা ও জনতা একসাথে স্বাধীন বাংলাদেশের পতাকা উড়িয়ে বিজয় উল্লাস করে। হানাদার বাহিনীর হাত থেকে কুমিল্লা মুক্ত হওয়ার পর ভারতীয় মিত্র বাহিনীর পূর্বাঞ্চলীয় কমান্ডের কমান্ডার লে. জেনারেল অরোরা কুমিল্লায় এলে স্থানীয় জনতা তাকে স্বাগত জানান। এদিন মুক্তিবাহিনী ও মিত্রবাহিনীর সহায়তায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া হানাদার মুক্ত হয়। এছাড়াও এদিন বরিশাল ও পিরোজপুর হানাদার মুক্ত হয়। বরিশাল ও পিরোজপুর জেলা শহরে বীর মুক্তিযোদ্ধারা দারা পৃথকভাবে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করে আনন্দ উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। সেই বাঁধভাঙা উচ্ছ্বাসে মেতে ওঠেন স্থানীয় জনতা। ১৯৭১ সালের এদিন চাঁদপুর নদী বন্দরের কাছে বিমান থেকে বোমা হামলা চালিয়ে হানাদার বাহিনীর নৌযান ব্যাপক ক্ষতিগ্রস্ত করে ভারতীয় মিত্র বাহিনী। এদিন মুজিবনগর থেকে দেয়া এক বেতার ভাষণে জাতির উদ্দেশে প্রবাসী বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দিন আহমেদ বলেন, স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ এখন একটি প্রতিষ্ঠত সত্য। পাক হানাদার বাহিনী এখন প্রাণ বাঁচাতে পালাচ্ছে। পাকিস্তানিদের পরাজয় এখন কেবল সময়ের অপেক্ষা। আজ আমাদের সবাইকে সাথে নিয়ে শত্রুর ওপর আঘাত হানতে হবে এবং বাংলাদেশের মাটিতে তাদের কবর রচনা করতে হবে। এদিন বাংলাদেশে অবস্থানরত পাকিস্তানি বাহিনীর আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্রধান জেনারেল এস এইচ এফ জে মানেকশ।

Lab Scan