বাবার লাশ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিল লাবিবা

0

মহেশপুর (ঝিনাইদহ) সংবাদদাতা ॥ বাবার লাশ বাড়িতে রেখে লাবিবাকে এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নিতে হলো। মহেশপুর উপজেলার স্বরুপপুর ইউনিয়নের কুসুমপুর গ্রামে বুধবার এ ঘটনা ঘটে। লাবিবা দত্তনগর এসএম ফার্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে বাবা ফয়জুল হক (৪০) গত মঙ্গলবার রাতে ঢাকার একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। বুধবার বাড়ি জুড়ে চলছিল শোকের মাতম ও দাফনের প্রস্তুতি।
লাবিবার পরিবার ও প্রতিবেশীরা জানান , কুসুমপুর গ্রামের ফয়জুল হক লাবুর মেয়ে লাবিবা বুধবার এসএসসির ইংরেজি প্রথম পত্র পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। বাবার মৃত্যুর পর লাবিবা ভেঙে পড়লেও স্বজনদের কথায় পরীক্ষা দিতে যায় সে। দত্তনগর এসএম ফার্ম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহাবুব হুসাইন বলেন,লাবিবা আমার স্কুলের খুবি ভালো ছাত্রী ‘বাবাকে হারানো যে কারও জন্য খুবই কষ্টদায়ক। তারপরও এসএসসি পরীক্ষার্থী লাবিবা বাবা হারানোর কষ্ট নিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে। আমরাও তার পরীক্ষার সময় যতটা সম্ভব পাশে থেকে স্বান্তনা দেওয়ার চেষ্টা করেছি।
পরীক্ষা শেষে লাবিবা বলে,‘বাবা আমাকে অনেক ভালোবাসতেন। বাবা চাইতেন আমি যেন লেখাপড়া করে অনেক বড় হই। তাই এমন অবস্থায়ও আমি পরীক্ষায় অংশ নিয়েছি। বাবার আত্মাকে আমি কষ্ট দিতে চাই না।’
মহেশপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব রঞ্জন কুমার বলেন,শিক্ষার্থী লাবিবার বাবার মৃত্যুর বিষয়টি আমরা সকালেই জানতে পেরেছিলাম। সে এক হাতে রুমাল দিয়ে বারবার চোখ মুছছিলো। আর অন্য হাতে কলম ধরে পরীক্ষার খাতায় লিখেছে সে।

 

Lab Scan