বাঘারপাড়ায় টিকাকেন্দ্রে হট্টগোল, দুই শিক্ষার্থী ছুরিকাহত

0

স্টাফ রিপোর্টার॥ যশোরের বাঘারপাড়ায় করোনার টিকা নিতে গিয়ে হট্টগোলে উভয় পক্ষের দুই শিক্ষার্থী ছুরিকাঘাত হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় দুজনকে আটক করা হয়েছে। আহতদের যশোর জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। আহতরা হলেন- উপজেলার আন্দুলবাড়িয়া গ্রামের আজিজুর রহমানের ছেলে ও আন্দুলবাড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ১০ম শ্রেণির ছাত্র আরিফুল ইসলাম (১৬) এবং ধলগ্রামের রাকিবুল ইসলাম নান্নুর ছেলে ও দশপাখিয়া সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদরাসার দশম শ্রেণির ছাত্র রায়হান (১৬) ।
প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বাঘারপাড়া উপজেলা পরিষদ চত্বরে উপজেলার বিভিন্ন বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের করোনার টিকাদান চলছিল। এ সময় ধলগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্র ইজাজুল, রায়হান, নাহিদসহ কয়েকজন আরিফুলকে পেছনে ডেকে নিয়ে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পিঠে ছুরিকাঘাত করে। পরে সহপাঠীরা রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এর কিছু সময় পর রায়হানকে ছুরিকাঘাত করে বিরোধী পক্ষ। আহত রায়হান জানায়, হৃদয় নামে এক ছাত্রসহ কয়েকজন তার ওপর হামলা চালায়। বাঘারপাড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. সুমাইয়া রহমান জানান, আহত আজিজুল ও রায়হানের অবস্থা গুরুতর। প্রচুর রক্তক্ষরণ হচ্ছে। এরমধ্যে আজিজুলের পিঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করায় ফুসফুসের স্থানে ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। আর রায়হানের মাথার বামপাশে ধারালো অস্ত্রের চিহ্ন পাওয়া যায়। তাদেরকে যশোর জেনারেল হাসপাতালে রেফার করা হয়েছে। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আকরাম হোসেন খান জানান, জুম মিটিং থাকায় কী কারণে এ ছুরিকাঘাতের ঘটনা ঘটেছে তা এখনো জানা যায়নি। তবে ঘটনাটি অনাকাঙ্ক্ষিত বলে দাবি করেছেন এ কর্মকর্তা। একইসাথে অনেক শিক্ষার্থী টিকা নিতে আসায় হট্টগোল হয়েছে। তবে এবার থেকে কড়া নিরাপত্তায় টিকা দেওয়া হবে বলেও জানান তিনি। বাঘারপাড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফিরোজ উদ্দীন জানান, এ ঘটনায় মূল হামলাকারী ইজাজুলসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। বাদীর মামলার পর পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। গুরুতর আহত আরিফুলকে যশোর থেকে খুলনায় রেফার করা হয়েছে।

Lab Scan