বাঘারপাড়ায় আগুনে নিঃস্ব দুই পরিবার

0

 

বাঘারপাড়া (যশোর) সংবাদদাতা॥ যশোরের বাঘারপাড়া উপজেলায় বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিটের আগুনে দুটি পরিবারের ছয়টি ঘরসহ ঘরের যাবতীয় সামগ্রী পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার বাসুয়াড়ি ইউনিয়নের রঘুনাথপুর গ্রামের হাসান আলীর ও রুবেল হোসেনের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। হাসান আলী গ্রামের সৈয়দ আলী ফারাজীর ছেলে এবং একই গ্রামের আবু তালেব মৃধার ছেলে রুবেল।
স্থানীয়রা জানায়, বাড়ির বসতঘর থেকে বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত। মুহূর্তে আগুন পুরো বাড়ির সকল বসতঘরের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় আগুন নেভাতে স্থানীয়রা ব্যাপক চেষ্টা চালায়। পরে খবর পেয়ে বাঘারপাড়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। ততক্ষণে ওই বাড়ির দুই ভাই হাসান ও রুবেলের বসবাসরত ৬টি টিনের ছাউনির ঘর পুড়ে ছাই হয়ে যায়।
একটি বাড়ির মালিক হাসান আলী বলেন, আমার ও আমার মামাতো ভাই রুবেলের ঘরে থাকা স্বর্ণালংকার, জমির দলিলপত্র, আইডিকার্ড, পোষাক, লেপকাঁথা, সরিষাসহ দুই পরিবারের মূল্যবান জিনিসপত্র সব পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। এতে তাদের নগদ তিন লাখ টাকাসহ অন্তত ১০ লাখ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তিনি আরও বলেন, রুবেল গতকাল (বুধবার) গ্রামীণ ব্যাংক থেকে ১ লাখ ৫০হাজার টাকা লোন নিয়ে বাড়িতে রাখেন। আমিও রূপালী ব্যাংক থেকে ১ লাখ ৪০হাজার জমানো টাকা তুলে ঘরে রেখেছিলাম। এখন আমাদের পরনের কাপড় ছাড়া আর কিছুই রইলো না।
বাঘারপাড়া ফায়ার সার্ভিসের (ভারপ্রাপ্ত) স্টেশন কর্মকর্তা আয়ুব হোসেন জানান, খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের গাড়ি ঘটনাস্থলে পৌঁছে সদস্যরা মিলে ঘন্টা খানেক সময় ধরে আগুন নিয়ন্ত্রণ আনে। এতে পরিবারগুলোর নগদ অর্থসহ আট লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি হয়েছে। বৈদ্যুতিক শর্টসার্কিট থেকে আগুনের সূত্রপাত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

 

 

Lab Scan