বাগেরহাট ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে জমিদখলে নিতে ভাঙচুর ও লুটের অভিযোগ

0

 

বাগেরহাট সংবাদদাতা॥ বাগেরহাটের মোল্লাহাটে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে প্রতিপক্ষের জমির পিলার ভাঙচুর, রড ও টিনের বেড়া লুটের অভিযোগ উঠেছে রড-সিমেন্ট ব্যবসায়ী আব্দুল কুদ্দুস শিকদারের বিরুদ্ধে। মঙ্গলবার দুপুরে বাগেরহাট প্রেসক্লাব মিলনায়তনে সংবাদ সম্মেলন করে এই অভিযোগ করেন মোল্লাহাট উপজেলার গাড়ফা এলাকার বাসিন্দা ক্ষতিগ্রস্থ সৈয়দ মো. রইছুল ইসলাম।
সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, উপজেলার গাড়ফা মৌজায় আব্দুল গফুরের কাছ থেকে ৮৩ শতক এবং আদিলুদ্দি খা‘র কাছ থেকে ১৮ শতক জমি কিনে দীর্ঘদিন ধরে ভোগদখল করে আসছেন তিনি। এই জমির মধ্যে গাড়ফা এলাকার কুদ্দুস শিদার ও তার ভাইদের কোনো প্রকার স্বত্ত্ব না থাকা সত্বেও কুদ্দুস শিদার ও তার ভাই বাদল শিকদার, মামুন শিকদার, চাচাতো ভাই জাহাঙ্গীর শিকদার, তুরান শিকদার, আজিজ শিকদার, আলিম শিকদার, মেজবা শিকদার, জুয়েল শিকদারসহ একটি কুচক্রী মহল আদিলুদ্দি খা‘র কাছ থেকে ক্রয়কৃত ১৮শতক জমি জোপূর্বক দখলের চেষ্টা করে। গত বছরের ১লা নভেম্বর ভোগদখলীয় বসতবাড়িতে নির্মাণ কাজ শুরু করলে কুদ্দুস শিকদার তা বন্ধ করে দেয়। পরবর্তীতে স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তির সমন্বয়ে থানায় শালিম বৈঠক হয়, সেখানে কুদ্দুস শিকদার তার মালিকানার কোনো ধরনের কাগজ দেখাতে পারেনি।
সৈয়দ মো. রইছুল ইসলাম আরো জানান, পরবর্তীতে ওই জমিতে মালিকানা সাইনবোর্ডসহ পাকা পিলার ও বাঁশ খুটি দিয়ে টিনের বেড়া স্থাপন করা হয়। কুদ্দুস শিকদারে ভাই বাদল শিকদার বেড়া খুলে নিতে বলে ও নানা রকম হুমকি-ধামকি দেন এবং থানায় অভিযোগ করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ২৭ জুন থানায় শালিস বৈঠক বসে। সেখানে তারা বেড়া খুলে নেওয়ার জন্য শাসায় এবং মারপিট করার জন্য তেড়ে আসে। থানা থেকে বেরিয়ে এসে তারা ওই জমির পাকা পিলার ভেঙ্গে মালিকানা সাইনবোর্ড, টিনের বেড়া ও নির্মাণ কাজের জন্য আনা ৩০০ কেজি রড লুট করে নিয়ে যায়।

মোল্লাহাট থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মতিয়ার রহমান বলেন, জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে বেড়া দেওয়া ও কেটে ফেলার ঘটনায় উভয় পক্ষ থেকে অভিযোগ পাওয়াগেছে। স্থানীয়ভাবে মিমাংসার কথা হয়েছে। ওই জমি নিয়ে আদালতে মামলাও হয়েছে। তবে ঘটনাস্থলে শান্তিশৃঙ্খলা বজায় রাখতে পুলিশ তৎপর রয়েছে।

Lab Scan