বাগেরহাটে বিএনপি-জামায়াতের ১৪ নেতাকর্মী আটক

0

বাগেরহাট সংবাদদাতা॥ বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে নাশকতা করার পরিকল্পনার অভিযোগে বিএনপি ও জামায়াতে ইসলামীর ১৪ জন নেতাকর্মীকে আটক করা হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, শুক্রবার (৯ ডিসেম্বর) গভীর রাতে মোরেলগঞ্জ পৌরসভার রওশনআরা মহিলা কলেজ এলাকায় নাশককতার প্রস্তুতিকালে এদেরকে আটক করা হয়। তবে আটককৃতদের পরিবারের দাবি বাড়ি থেকে ধরে এনে নাশকতার মামলা দেওয়া হয়েছে।  শনিবার দুপুরে আটক নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে মামলা দিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এর আগে দুপুর ১ টার দিকে প্রিজন ভ্যানে করে মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশ আদালতে নেয় আটককৃতদের।
আটক নেতাকর্মীরা হলেন, নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি মো. আব্বাস উদ্দিন, শ্রমিকদল সভাপতি মাসুদ খান চুন্নু, উপজেলা কৃষক দলের সাবেক সভাপতি মশিউর রহমান শফিক, খাউলিয়া ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোঃ মিজানুর রহমান, খাউলিয়া ইউনিয়ন জামায়াতের সেক্রেটারি মোঃ শহিদুল ইসলাম হাং, সদস্য মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, মোঃ সুমন খান, আব্দুর রব, মোঃ আবুল বাসার। এ ছাড়াও গ্রেফতার হওয়া আরিফুল ইসলাম অনিক, মোঃ বাদল শরিফ, মোঃ ইমদাদুল ইসলাম হাং, মো. মিন্টু হাওলাদার ও এস এম ফেরদৌসের দলীয় পরিচয় জানা যায়নি।
এ ঘটনায় মোরেলগঞ্জ থানা পুলিশের করা মামলায় এজাহার নামীয় আসামি ২৮ জন এবং অজ্ঞাতনামা রয়েছেন ৩০-৪০জন আসামী রয়েছেন।
ঢাকায় বিএনপির সমাবেশ কেন্দ্র করে কয়েকদিনে বাগেরহাটের ফকিরহাট, রামপাল, কচুয়া, মোল্লাহাট, চিতলমারী, মোংলা সদর উপজেলা থেকে জামায়াত-বিএনপির অন্তত অর্ধশতাধিক নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ এমন দাবি করেছেন দলটির নেতারা।
মোরেলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইদুর রহমান বলেন, আটক করা বিএনপি ও জামায়াতের নেতা কর্মীরা নাশকতার প্রস্তুতি নিচ্ছিল। ঘটনাস্থল থেকে ৩টি অবিষ্ফোরিত ও একটি বিষ্ফোরিত ককটেলসহ বেশ কিছু আলামত জব্দ করা হয়েছে। মামলা দায়ের পূর্বক আসামিদের আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

Lab Scan